রাজনীতির মন্ত্রের সঙ্গে বৃত্তিগত প্রশিক্ষণের পরামর্শ মিলিয়ে দিল ছাত্র পরিষদ। সংগঠনের ৬৬তম প্রতিষ্ঠা দিবসে প্রথাগত বক্তৃতার পাশাপাশিই হদিস দেওয়া হল স্বল্প খরচে পেশাদারি কোর্স এবং চাকরির প্রশিক্ষণের। যা কাজে লাগিয়ে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করতে পারবেন ছাত্র সংগঠনের কর্মীরা।

মহাজাতি সদনে বুধবার ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপনের অনুষ্ঠানে ছিলেন এআইসিসি-র তরফে বাংলার ভারপ্রাপ্ত নেতা গৌরব গগৈ, প্রদেশ সমন্বয় কমিটির চেয়ারম্যান প্রদীপ ভট্টাচার্য। ছিলেন অমিতাভ চক্রবর্তী, শুভঙ্কর সরকার, আশুতোষ চট্টোপাধ্যায়েরাও। গৌরব বলেন, বিজেপি এবং তৃণমূল উভয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করেই বাংলায় সংগঠনকে এগোতে হবে। ধর্মনিরপেক্ষতার আদর্শ মনে রেখে কাজ করতে হবে। প্রদীপবাবুর পরামর্শ, বহুত্ববাদের পরম্পরা নিয়ে চলতে হবে। সংবিধান প্রণেতাদের মাথায় যে বহুত্ববাদের ধারণা ছিল, বিজেপি-আরএসএসের জমানায় তাকে নস্যাৎ করার চেষ্টা হচ্ছে বলে তাঁর অভিযোগ। বক্তৃতার পরে ‘প্রেজেন্টেশন’ দিয়ে দেখানো হয়, ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা খরচে কোন ধরনের কোর্স বা প্রশিক্ষণ নিয়ে কাজের সুযোগ মিলতে পারে। ছাত্র পরিষদের সভাপতি সৌরভ প্রসাদ জানিয়েছেন, এই ধরনের পরামর্শ দেওয়ার কাজ সংগঠনে নিয়মিত চালানোর চেষ্টা হবে।