ফোন ট্যাপ, নজরদারির অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর
বুধবার শ্রীরামপুরের সভায় তিনি বলেন, ‘‘সমস্ত কথা তুলে নেয় ওরা। কাউকে ফোন করে দাঁতের মাজন আনতে বললেও ওরা শুনে নেয়। আমিও তাই অন্য ব্যবস্থা নিয়েছি।’’
mamata

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

তাঁর ফোন ট্যাপ করা হয়। ফের অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বললেন, সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত জীবনেও ‘নজরদারি’ চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার।

আগেও একাধিকবার এই অভিযোগ করেছেন মমতা। বুধবার শ্রীরামপুরের সভায় তিনি বলেন, ‘‘সমস্ত কথা তুলে নেয় ওরা। কাউকে ফোন করে দাঁতের মাজন আনতে বললেও ওরা শুনে নেয়। আমিও তাই অন্য ব্যবস্থা নিয়েছি।’’

এর পরেই হাতে কলমে মমতা বুঝিয়ে দেন তাঁর ‘অন্য ব্যবস্থা’। রসিকতা করে বলেন, যাঁরা ফোন ট্যাপ করেন কী ভাবে তাঁদের তিনি বোকা বানান। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘ধরুন আমি এক পরিচিতের সঙ্গে কথা বলছি। তাঁর নাম অবনী, কিন্তু আমি তাঁর নাম দিই অনাহূত। এ ভাবে ভুল ভাল নামে সকলের পরিচয় ফোনে সেভ করে রাখি। মাঝে মাঝে নিজেই ভুলে যাই, কাকে কী নামে সেভ করেছি। কিন্তু এটা করলে ওরা বুঝতে পারে না কার সঙ্গে কথা বলছি।’’

মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, আইবি-র (ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো) অফিসাররাই তাঁকে বলেছেন যে তাঁর ফোন ট্যাপ করা হয়। এবং শুধু তাঁর নয়, মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ, ‘‘ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে ফোন, কম্পিউটার— সর্বত্র কেন্দ্রীয় সরকার নজরদারি চালাচ্ছে।’’

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত