দুর্নীতিতে কংগ্রেসকেও পিছনে ফেলেছে তৃণমূল। রাজ্যের উন্নয়ন থমকে আছে ‘স্পিডব্রেকার’ দিদির জন্যই। আসানসোলে বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়র সমর্থনে জনসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তথা রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে এ ভাবেই তোপ দাগলেন নরেন্দ্র মোদী

মঙ্গলবার বিরোধী জোটকেও তীব্র আক্রমণ করেন নরেন্দ্র মোদী।  বিরোধীদের জোটকে ‘ভেজাল মহাগঠবন্ধন’ বলেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি।

আসানসোলের জনসভায় কী কী বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, এক নজরে তা দেখে নিন—

• দেশ এক ‘ভিশনওয়ালে’ চায়, ‘ডিভিশনওয়ালে’ নয়।

• নতুন ভারত গড়ার দায়িত্ব আপনাদের সকলের। 

• ২০১৪-তে বাবুল সুপ্রিয়কে জিততে আপনারা সাহায্য করেছিলেন। এ বারও আপনারা বাবুলকে আশীর্বাদ করুন।

• ২০২১ সালের মধ্যে এ রাজ্যে সকলের জন্য ঘর হবে, যদি মোদী সরকার ক্ষমতায় আসে।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

 

• ব্যবসায়ীদের জন্য রাষ্ট্রীয় ব্যাপারী সংগঠন গঠন করা হবে।

• নতুন ভোটাররা স্বচ্ছ প্রশাসন চান, দুর্নীতি চান না।

• পাকিস্তানে জঙ্গি-নিধন নিয়ে দিদি কেন প্রশ্ন তোলেন?

আরও পড়ুন: বুথের কাছেই পেটে হাঁসুয়া, কংগ্রেস কর্মীর মৃত্যু ভগবানগোলায়, অভিযুক্ত তৃণমূল

আরও পড়ুন: দেশপ্রেমের ডঙ্কা অমিতের

• মহাগঠবন্ধনকে ধাক্কা দেবে এ রাজ্যের মানুষ।

• আমি আপনাদের প্রণাম করি। আপনারা দুর্নীতির বিরুদ্ধে লাগাতার রুখে দাঁড়িয়েছেন।

• দিদির এই মডেল কি দেশ সত্যিই চায়?

• ‘স্পিডব্রেকার’ দিদির এ রাজ্যে উন্নয়ন নেই।

• কমিশনকে ভয় দেখিয়ে লাভ নেই, মোদীকে কুকথা বলেও লাভ নেই।

• এ রাজ্যের ভোটারদের বছরের পর বছর বঞ্চিত করা হয়েছে। এখানে জগাই-মাধাই রাজ চলছে।

• গরিব মানুষের অর্থ যারা লুঠ করেছে, তৃণমূল সমর্থন করেছে তাদের।

• এই সরকারের লক্ষ্য শুধু লুঠের ভাগ নেওয়া।

(পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্ত থেকেবাংলায় খবরজানতে পড়ুন আমাদেররাজ্যবিভাগ।)