বিধানসভা ভেঙে দেওয়ার হুঁশিয়ারি, বিতর্কে সুরেন্দ্র
সভা শেষে অহলুওয়ালিয়া বলেন, “সরকার ভাঙার কথা বলিনি। এ রাজ্যে সন্ত্রাসের যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, সেটাই তুলে ধরা হয়েছে।’’
BJP CANDIDATE

বুদবুদে প্রচারে বিজেপি প্রার্থী সুরেন্দ্র সিংহ অহলুওয়ালিয়া। নিজস্ব চিত্র।

এ রাজ্যে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন পেলে ছ’মাসের মধ্যে বিধানসভা ভেঙে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিলেন বর্ধমান-দুর্গাপুরের বিজেপি প্রার্থী সুরেন্দ্র সিংহ অহলুওয়ালিয়া। বুধবার দুপুরে বর্ধমান শহরের টাউন হলে এক কর্মিসভায় ওই দাবি করেন তিনি। যদিও সভার শেষে তাঁর দাবি, “সরকার ভাঙার কথা বলিনি। আমি বলেছি, যেখানে সন্ত্রাস চলছে, সেখানে বিধানসভা নির্বাচন হবে।’’

বিজেপি প্রার্থীর বক্তব্যের সমালোচনা করে রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূলের জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথ বলেন, “একটা নির্বাচিত সরকারকে এ ভাবে কেউ ফেলে দেওয়ার হুঙ্কার দিতে পারে? এ সব ফ্যাসিস্ট মন্তব্য। আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাচ্ছি।’’

সভায় পঞ্চায়েত-ভোটের প্রসঙ্গ তোলেন বিজেপি প্রার্থী। তিনি দাবি করেন, পঞ্চায়েত ভোটের সময় কী রকম সন্ত্রাস হয়েছিল তা সবাই জানে। এখনও সন্ত্রাস চলছে। গ্রাম বাংলার মানুষ শান্তিতে থাকতে পারছেন না। এর পরেই তাঁকে বলতে শোনা যায়, “আপনারা আমাদের ৪২টি কেন্দ্রের মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠতা দিন। বলে রাখছি, আমি মোদী সরকারকে দিয়ে ছ’মাসের ভিতরে এখানে বিধানসভা নির্বাচন করিয়ে দেব।’’ কিছু ক্ষণ থেমে তিনি বলেন, “সন্ত্রাস থেকে মুক্ত করার জন্যে ছ’মাসের মধ্যে বিধানসভা নির্বাচন করিয়ে দেব।’’ 

যদিও সভা শেষে অহলুওয়ালিয়া বলেন, “সরকার ভাঙার কথা বলিনি। এ রাজ্যে সন্ত্রাসের যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, সেটাই তুলে ধরা হয়েছে।’’ স্বপন দেবনাথের কটাক্ষ, “আগে উনি নিজে জিতে দেখান, তার পরে সরকার ভাঙার কথা!’’

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

এ দিন কয়েকজন বিজেপিতে যোগ দেন ওই অনুষ্ঠানে। সদ্য দলে যোগ দেওয়া নেতা আইনুল হকের দাবি, “প্রতিদিনই সিপিএম থেকে কিছু না কিছু কর্মী যোগ দিচ্ছেন। সিপিএমের হয়ে যাঁরা বুথে ভোট করতেন, তাঁদেরকে আমরা দলে নিচ্ছি। তবে সবাইকে প্রকাশ্যে নিয়ে আসছি না।’’ যদিও সিপিএমের নেতারা এই দাবি হাস্যকর বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। সিপিএম থেকে কেউ বিজেপিতে যাননি বলেও তাঁদের দাবি।

এ দিনই বুদবুদ এলাকায় একটি দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন করার পাশাপাশি কর্মিসভায় যোগ দেন সুরেন্দ্র সিংহ অহলুওয়ালিয়া। বিকেলে বুদবুদ বাজার, কসবা, চাকতেঁতুল প্রভৃতি জায়গায় রোড-শো করেন তিনি। সেখান থেকে দলীয় কর্মীদের বলেন, ‘‘বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিজেপিকে ভোট দেওয়ার জন্য মানুষকে বোঝান।’’

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত