বিজেপির হাত থেকে ফের দলের কাছে বলরামপুরকে ফিরিয়ে দিতে চান তৃণমূলের প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র। বিজেপির সভার ছ’দিনের মাথায় রবিবার বলরামপুরের সরাই ময়দানে সভা করতে এসে এমনই দাবি করলেন তিনি।

এ বার পঞ্চায়েত ভোটে বলরামপুরের সব ক’টি পঞ্চায়েত থেকে পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলা পরিষদের দু’টি আসনই বিজেপি শাসকদলের হাত থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে। তারপরে দুই বিজেপি কর্মীর অস্বাভাবিক মৃত্যুতে তেতে ওঠে বলরামপুর। বিজেপি পরপর কর্মসূচি নিলেও তৃণমূল বলরামপুরে শুধু মিছিল ও ছোট সভা করেছিল। দলীয় কর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করতেই এ দিনের সভা বলে তৃণমূল সূত্রে খবর।

সেখানে মদন ছাড়াও অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী, বলরামপুরের বিধায়ক তথা মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো, সাংসদ মৃগাঙ্ক মাহাতো, দলের জেলা সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট সুজয় বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ ছিলেন। মদন দাবি করেন, ‘‘পুরুলিয়াকে বিরোধীশূন্য করা নিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে। উনি রাজনৈতিক ভাবে শূন্য করার কথা বলেছিলেন। অমিত শাহ, নরেন্দ্র মোদীও বিরোধী শূন্য করার কথা বলেন।’’ তিনি বলরামপুরকে গণতান্ত্রিক ভাবে ফিরিয়ে দেবেন দাবি করে এই কেন্দ্রের দায়িত্ব চেয়ে দলের কাছে ‘ভিক্ষা প্রার্থনা’ করেন। তাঁর কথায়, ‘‘মাসে এবং প্রয়োজনে সপ্তাহে এক দিন করে আমি বলরামপুরে আসব। রক্ত দেব, কিন্তু, বলরামপুর আমরা ছাড়ব না।’’

তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, এ দিন ১০ হাজার লোক হয়েছিল। তবে বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, গত সোমবার তাঁদের সভায় দ্বিগুণ লোক হয়েছিল।