সদ্যই পঞ্চায়েত ভোটে উত্তরবঙ্গ বা পশ্চিমের ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়ার জনজাতি এলাকায় ধাক্কা খেয়েছে শাসক দল। তুলনায় ভাল ফল করেছে বিজেপি। তার পরেই এ বার ৯ অগস্ট ‘আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস’ পালনের ডাক দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাষ্ট্রসঙ্ঘের খাতায় ৯ অগস্ট দিনটি ‘ইন্টারন্যাশনাল ডে অব ওয়ার্ল্ড ইন্ডিজেনাস পিপল’ হিসেবে স্বীকৃত। এই বছরই হঠাৎ সেই দিনটিকে ‘আদিবাসী দিবস’ হিসেবে পাললের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর বেছে নেওয়ার পিছনে রাজনৈতিক অঙ্কই কাজ করছে বলে মনে করা হচ্ছে।

উত্তরকন্যায় বুধবার আলিপুরদুয়ারের প্রশাসনিক বৈঠকের মঞ্চ থেকে ওই ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে দিনটি শুধু আলিপুরদুয়ার জেলায় পালন করা হবে, নাকি গোটা রাজ্যে, তা তিনি স্পষ্ট করেননি।

পঞ্চায়েত ভোটে পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া বা উত্তরবঙ্গের রায়গঞ্জ থেকে আলিপুরদুয়ারের জনজাতি এলাকায় ভাল ফল করার পরে বিজেপি ওই সব এলাকায় রাজনৈতিক কাজকর্মে জোর বাড়িয়েছে। উত্তরের চা-বলয়ে শ্রমিক সংগঠনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আন্দোলন শুরু করার কথাও ঘোষণা করেছে। এমতাবস্থায় ৩০ জুন রাজ্য জুড়ে ‘হুল দিবস’ পালন করার পরে এ বার ‘আদিবাসী দিবস’ কি জনজাতি ভোটব্যাঙ্কে ভাঙন আটকাতেই? আলিপুরদুয়ারে তৃণমূলের জেলা সভাপতি মোহন শর্মা অবশ্য বলেন, ‘‘জনজাতি অধ্যুষিত এলাকার মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে রয়েছেন, সেটা ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে আমরা দেখিয়ে দেব!’’ দিনটি ঠিক কী ভাবে পালন করা হবে, তা নিয়ে জেলা প্রশাসন এখনও অন্ধকারে। মোহন বলেন, ‘‘শীঘ্রই জেলাশাসকের সঙ্গে বসব৷’’