নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর মৃত্যু-বিতর্ক নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাইলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৯৪৫ সালে তাইহোকুর বিমান দুর্ঘটনাতেই নেতাজির মৃত্যু হয়েছিল বলে কিছু দিন আগে তথ্য জানার অধিকার আইনে জবাব দিয়েছিল কেন্দ্র। প্রমাণ ছাড়া কী ভাবে কেন্দ্র এমন তথ্য দিল, তা নিয়ে বিভিন্ন তরফে প্রশ্ন উঠেছে। কেন্দ্র কী ভাবে প্রমাণ ছাড়াই এমন সিদ্ধান্ত ঘোষণা করল, তা নিয়ে শুক্রবার ফেসবুক পেজে মুখ্যমন্ত্রী মমতাও বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। সে জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বিষয়টি ভেবে দেখার অনুরোধ জানিয়ে মমতা লিখেছেন, ‘‘এ ব্যাপারে কেন্দ্র কী পদক্ষেপ করবে, তা জানতে চাইছি।’’ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এ দিন জানিয়েছে, সরকারের কাছে সর্বশেষ পাওয়া যে তথ্য আছে, তার ভিত্তিতেই ওই জবাব দেওয়া হয়েছে। যার অর্থ বিমান দুর্ঘটনায় নেতাজির মৃত্যুর সিদ্ধান্তে কেন্দ্র এখনও অটল। মমতার বক্তব্য, ‘‘নেতাজির মতো বরেণ্যর মৃত্যু নিয়ে দায়সারা জবাব দিয়েছে কেন্দ্র। এটা মানা যায় না।’’ কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আজ, শনিবার হাজরা মোড়ে সভা করবে মমতার ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংগঠন।