• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ইস্তফায় রাজি হয়ে ঘেরাও থেকে মুক্ত ব্রিটানিয়া এমডি

Britannia Engineering Limited

ইস্তফা দেবেন এমন মুচলেকা দিয়ে শাসক দলের ঘেরাও থেকে মুক্ত হতে হল রাজ্য সরকার অধিগৃহীত একটি সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি)-কে। শুক্রবার দুপুর থেকে টিটাগড় ব্রিটানিয়া ইঞ্জিনিয়রিং সংস্থার এমডি সৌদাস পালকে ঘেরাও করে রাখে তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠন আইএনটিটিইউসি। তবে ইউনিয়নের এমন আন্দোলনের খবর রাত পর্যন্ত তাঁদের কাছে নেই বলে দাবি জেলা নেতৃত্বের।

ব্রিটানিয়া ইঞ্জিনিয়রিংয়ের দু’টি শাখা। একটি শাখায় রোড রোলার এবং চা বাগানে ব্যবহৃত বিভিন্ন যন্ত্রপাতি তৈরি হয়। অন্যটি মূলত রেলের যন্ত্রাংশ তৈরি করে। এই কারখানার কর্মচারী ইউনিয়নের সম্পাদক দেবাশিস চৌধুরী বলেন, ‘‘নতুন এমডি সিভিল ইঞ্জিনিয়ার। তিনি কাজ বোঝেন না। উৎপাদন কমিয়ে, টাকা নয়ছয় করে তিনি কারখানার ক্ষতি করছেন। তাই এ দিন তাঁকে কারখানায় পেয়ে আমরা ঘেরাও করি।’’

 সৌদাসবাবু আগে ম্যাকিনটস বার্ন সংস্থায় ছিলেন। বছর দেড়েক আগে তিনি এই সংস্থার দায়িত্ব নেন। তিনি সংস্থার বাগুইআটির অফিসে বসেন। এ দিন দুপুরে এমডি টিটাগড়ের অফিসে যান। তখনই তাঁকে ঘেরাও করেন আইএনটিটিইউসি-র সদস্যেরা। এ দিনই তাঁকে এমডি পদ থেকে ইস্তফা দিতে হবে— এই দাবি জানানো হয়।

তিনি জানান, ৫ জুলাই সংস্থার বোর্ড অফ ডিরেক্টর্স-এর বৈঠক রয়েছে। সেখানেই তিনি ইস্তফা দেবেন। ইউনিয়নের নেতারা দাবি জানান, এই মর্মে তাঁকে মুচলেকা দিতে হবে। রাত সাড়ে আটটা নাগাদ সেই মুচলেকা দিয়ে তিনি ঘেরাওমুক্ত হন। তবে এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি সৌদাসবাবু। তিনি বলেন, ‘‘এখনই কিছু বলছি না। যা জানানোর কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। সিদ্ধান্ত তাঁরাই নেবেন।’’

ব্যারাকপুরে শ্রমিক সংগঠন দেখেন ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিংহ। এমন ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘‘এমন আন্দোলনের কথা আমাকে কেউ জানায়নি। অনুমতিও নেয়নি।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন