• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কিছু দাবি মেনে নয়া বেতনহার কলেজে

UGC
ফাইল চিত্র।

সপ্তম বেতন কমিশনের সুপারিশ মেনে রাজ্য সরকার ডিসেম্বরে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নতুন বেতন-কাঠামো ঘোষণা করেছিল। শিক্ষক শিবিরের বিক্ষোভের মুখে এ বার তাতে কিছু সংশোধন করা হল। নতুন নির্দেশে শিক্ষক সংগঠনগুলির কিছু দাবি মান্যতা পেয়েছে। কিন্তু সব দাবি না-মানলে আন্দোলন চলবে বলে জানিয়ে দিয়েছে কয়েকটি সংগঠন।

শিক্ষক সংগঠনগুলি দাবি তুলেছিল, বেতনক্রম চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে নয়, ২০১৬ সালের ১ জানুয়ারি থেকে দিতে হবে। এমফিল, পিএইচ ডি থাকলে ইনক্রিমেন্ট দিতে হবে শিক্ষকদের। যে-সব কলেজে স্নাতকোত্তর বিষয়ের পঠনপাঠন চলে, সেখানকার অধ্যক্ষদের তুলনায় যে-সব কলেজে শুধু স্নাতক শ্রেণির পাঠ দেওয়া হয়, সেখানকার অধ্যক্ষদের ভাতা কমানোর সিদ্ধান্ত বদলাতে হবে। সব কলেজের অধ্যক্ষ-পদকেই প্রফেসর-পদের সমতুল ধরতে হবে। 

সোমবার প্রকাশিত সরকারি আদেশে জানানো হয়েছে, এমফিল, পিএইচ ডি থাকলে শিক্ষকদের ইনক্রিমেন্ট দেওয়া হবে। বেতনক্রম সংশোধন করা হলে সিনিয়র ও জুনিয়র শিক্ষকেরা পে-ম্যাট্রিক্সে একই জায়গায় পড়ে যেতে পারেন। তখন সিনিয়রদের একটি ইনক্রিমেন্ট দেওয়া হয়। এটাই চালু পদ্ধতি। রাজ্য সরকারের প্রথম নির্দেশিকায় তা ছিল না। একে ‘বাঞ্চিং এফেক্ট’ বলে। নতুন নির্দেশে তার উল্লেখ করা হয়েছে। সব কলেজের অধ্যক্ষদের বেতন এক হবে এবং প্রত্যেককেই প্রফেসর-পদের সমতুল ধরা হবে। তবে অধ্যক্ষ নিয়োগের মেয়াদ বেঁধে দেওয়ার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বা ইউজিসি-র যে-প্রস্তাব রয়েছে, তার উল্লেখ রয়েছে সরকারি আদেশে।

শিক্ষক সংগঠনগুলি সংশোধিত ব্যবস্থাতেও খুশি নয়। আন্দোলন চলবে বলে জানিয়ে দিয়েছে তারা। ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫টি শিক্ষক সংগঠনের রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ে অবস্থানের ডাক আগেই দিয়েছে। ওয়েবকুটা-র সাধারণ সম্পাদক কেশব ভট্টাচার্য এ দিন বলেন, ‘ইউজিসি-র নিয়ম মেনে আমাদের সব দাবি না-মানলে আন্দোলন চলবে।’’ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (জুটা)-র সাধারণ সম্পাদক পার্থপ্রতিম রায় এ দিন জানান, ইউজিসি-র নিয়ম অনুসারে বেতনক্রম ২০১৬ থেকেই দিতে হবে। নইলে তাঁরা আন্দোলনের পথ থেকে সরবেন না। আবুটা-র সহ-সভাপতি তরুণ নস্কর এ দিন বলেন, ‘‘যা হল, তা আমাদের আন্দোলনের জয়। তবে সব দাবিই মানতে হবে।’’ অধ্যক্ষদের বিশেষ বর্ধিত ভাতার উল্লেখ নতুন সরকারি নির্দেশে না-থাকায় অধ্যক্ষেরা ক্ষুব্ধ।

এ দিন রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির উপাচার্যদের সংশোধিত বেতন এবং ভাতার নির্দেশিকা প্রকাশিত হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন