স্নান করতে নেমে তলিয়ে যাওয়া যুবকের খোঁজ মিলল না সোমবারও। রবিবার গড়িয়াহাটের পণ্ডিতিয়া রোড থেকে ১৬ জনের একটি দল কুলপিতে পিকনিক করতে এসেছিল। হুগলি নদীতে স্নান করতে নেমে তলিয়ে যান চার যুবক। তিন জনের দেহ উদ্ধার হলেও শুভঙ্কর নারুয়া নামে বছর ছাব্বিশের যুবকের হদিস মেলেনি। সোমবার সকাল থেকে নৌকো, স্পিড বোট, ডুবুরি নামিয়ে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। বাকি তিনজনের দেহ ময়নাতদন্তের পরে এ দিন পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কুলপি ব্লকের বেলপুকুর পঞ্চায়েতে নিশ্চিন্তপুর পয়লা নম্বর ঘেরি গ্রামের কাছে হুগলি নদীর তীরে গজিয়ে ওঠা চরে পিকনিক হয় গত কয়েক বছর ধরে। কিন্তু পরিকাঠামো বলতে কিছুই নেই। চরটি সেচ দফতরের হলেও বহু বছর ধরে বন্দর কর্তৃপক্ষের অধীনে। রক্ষণাবেক্ষণের দায় পুলিশ বা পঞ্চায়েতের কেউ-ই সে ভাবে নেয় না বলে অভিযোগ। আগেও পিকনিক করতে এসে অনেকে তলিয়ে গিয়েছেন বলে স্থানীয় মানুষের অভিযোগ।