• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ট্রেনের জানলায় বসে হাওয়া খাচ্ছে হনুমান, লোকাল ট্রেনের ভিডিও ভাইরাল

Monkey ridding in Local Train, video gone Viral dgtl
রেলযাত্রায় মজে সেই হনুমান। ছবি ভিডিয়ো থেকে নেওয়া।

বছর শেষের সকাল। বিধাননগর স্টেশনে ঢুকছে ৯টা ৪৭ মিনিটের আপ শিয়ালদহ-গোবরডাঙা লোকাল। প্রতি দিনের মতোই অপেক্ষা করছেন নিত্যযাত্রীরা। ট্রেন থামতেই তাঁদের সঙ্গে তাতে চড়ে বসল এক হনুমান!

যাত্রীদের উত্যক্ত করা তো দূরের কথা, দিব্যি জানলার ধারে বসে সে-ও চলল ট্রেন-সফরে। নিত্যযাত্রীরা এমন ভ্রমণসঙ্গী পেয়ে আহ্লাদে আটখানা। সকলেই মেনে নিচ্ছেন, এমন সফরসঙ্গী পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। বছরের শেষ দিনে হনুমানের সেই রেল-ভ্রমণের ভিডিয়োয় আপাতত মজে নেটদুনিয়া।

ওই ট্রেনেই নিত্য যাতায়াত করেন চিকিৎসক মনোতোষ সাহা। তাঁর কথায়, ‘‘হনুমানটিকে দেখে সকলে প্রথমে হকচকিয়েই গিয়েছিলেন। কিন্তু স্বভাবগুণেই ও আমাদের মন জয় করে নেয়। কাউকে বিরক্ত করেনি। অসম্ভব ভদ্র। স্বভাবেও বিনয়ী। ট্রেন একটু এগোতেই ওকে জানলার ধারে বসার জায়গাও ছেড়ে দেন আমাদেরই এক বন্ধু। অত্যুৎসাহীরা সেলফি তোলেন। আমি মোবাইলে ওর ভিডিয়ো করি। কিছুতেই বাধা দেয়নি।’’

পাঁচ দিন বাবার মৃতদেহ আগলে ছেলে, বেহালা মনে করাচ্ছে রবিনসন স্ট্রিট আরও পড়ুন

হনুমানটির কীর্তিকলাপ দেখে মজে যান ওই কামরার যাত্রীরা। অনেকে তাকে আপেল, বেদানাও খেতে দেন। হনুমানটি তা খেয়ে নেয় নির্বিবাদে। পরে অন্য যাত্রীদের সঙ্গে গোবরডাঙায় নেমে যায় সে। হনুমানটির ঠিক উল্টো দিকে বসেছিলেন সাহিত্যিক সাত্যকি হালদার। তিনিও ওই ট্রেনের নিত্যযাত্রী। সাত্যকির কথায়, ‘‘আমাদের প্রতি দিনের কিচিরমিচির ৩১ ডিসেম্বরের ওই সকালে লজ্জাই পেয়েছিল।’’

ট্রেনের ওই কামরাতেই  ছিলেন কলেজ ছাত্রী অন্বেষা কুণ্ডু। তাঁর কথায়, ‘‘এত ভদ্র হনুমান জীবনে দেখিনি। অবাক ভাবে সারা ক্ষণ তাকিয়ে ছিল জানলার বাইরের দিকে। যেন বছর শেষে ঘুরতে বেরিয়েছে।’’

দেখুন সেই ভিডিয়ো:

 

ট্রেনের জানলায় বসে বাইরের দৃশ্য দেখতে দেখতে চলেছে হনুমান! এমন মজার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পেয়েই সাড়া পড়ে গিয়েছে। শিয়ালদহ-গোবরডাঙা লোকালের ওই কামরার যাত্রীরা এক বাক্যে মেনে নিচ্ছেন, বছরের শেষ দিনে অনন্য অভিজ্ঞতা হল।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন