রাজ্য সরকার বনাম রাজ্যপাল, সৌজন্য হেলিকপ্টার। রাজভবন এবং নবান্নের হেলিকপ্টার নিয়ে টানাপড়েনে দু’পক্ষের সম্পর্ক যে ক্রমেই তলানিতে, মঙ্গলবার তা ফের সামনে এসে পড়ল। আজ, বুধবার ডোমকল গার্লস কলেজের নতুন ভবনের উদ্বোধনে আসছেন রাজ্যপাল। রাজভবন সূত্রে জানা গিয়েছে, ফরাক্কার মতো এ বারেও রাজ্যপালের সফরের জন্য রাজ্য সরকারের কাছে হেলিকপ্টার চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু সাড়া মেলেনি। তবে, প্রায় ৫০০ কিলোমিটার সফরের জন্য কপ্টার চেয়েও না পাওয়ায় এ বার কোনও মন্তব্য করেননি রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। 

সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে, একই জেলায় ওই দিনই সরকারি সফরের জন্য হেলিকপ্টার সফর করবেন মুখ্যমন্ত্রী। ফলে রাজ্যপালের জন্য আর সরকারি হেলিকপ্টার বরাদ্দ করা যায়নি। তৃণমূলের দাবি, পরিকল্পনা করেই রাজ্যপাল ওই দিনই ডোমকলে সফরে আসছেন। যদিও ডোমকল গার্লস কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, রাজ্যপালের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর সফরের দিন মিলে যাওয়া একেবারেই কাকতালীয়। কলেজের সভাপতি ডোমকলের সিপিএম বিধায়ক আনিসুর রহমান বলছেন, ‘‘সবেতেই রাজনীতির গন্ধ খোঁজা উচিত নয়, আমরা মুখ্যমন্ত্রীকেও আহ্বান জানিয়েছিলাম এই অনুষ্ঠানে আসার জন্য। কিন্তু সময়ের অভাবে তাঁর পক্ষে সম্ভব হয়নি, রাজ্যপাল আমাদের সময় দিয়েছেন। আমরা কৃতজ্ঞ।’’

ওই কলেজের  ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানেও এসেছিলেন প্রাক্তন রাজ্যপাল গোপালকৃষ্ণ গাঁধী। তিনি অবশ্য সে সময়ে আকাশ পথেই ডোমকলে এসেছিলেন। এ বার সেই কলেজের নতুন ভবনের উদ্বোধন, ফের আসছেন রাজ্যপাল। তবে, 

সড়ক পথে। 

এ দিন ভোর ছ’টায় তাঁর রাজভবন থেকে যাত্রা শুরু করার কথা। সকাল ৯টায় কৃষ্ণনগর পৌঁছে কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিয়ে ফের ডোমকলের দিকে পাড়ি দেবেন তিনি। বিকেলে ফেরার পথেও রাজ্যপাল পৌনে পাঁচটা নাগাদ বিশ্রাম নেবেন রানাঘাটের 

সরকারি বাংলোয়।