সাধারণ মানুষ থেকে বিশিষ্ট জন পর্যন্ত বিভিন্ন শিবিরের সমালোচনা সত্ত্বেও কাজ বন্ধ রাখার রাস্তা ছাড়ছেন না আইনজীবীরা। বরং বিচারপ্রার্থীদের দুর্ভোগ বাড়িয়ে কলকাতা হাইকোর্ট-সহ রাজ্যের বিভিন্ন আদালতে তাঁদের কর্মবিরতির মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে সোমবার। হাওড়া আদালত-চত্বরে গোলমালের প্রেক্ষিতে রাজ্য বার কাউন্সিল এ দিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ২ মে, বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত কাজে যোগ দেবেন না আইনজীবীরা।

বিচারপ্রার্থীদের পক্ষে স্বস্তির খবর হল, আদালতের অচলাবস্থা কাটাতে পাঁচ বিচারপতির কমিটি গড়েছেন হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি থোট্টাথিল ভাস্করন নায়ার রাধাকৃষ্ণন। তাঁর ডিভিশন বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ, আদালত ও আদালত-চত্বরের নিরাপত্তা রক্ষা করা রাজ্য সরকারের সাংবিধানিক দায়িত্ব। আদালত-চত্বরে যে-কোনও রকম অনধিকারপ্রবেশ নিষিদ্ধ থাকবে, এটাই কাম্য। বিচার পাওয়া নাগরিকদের মৌলিক অধিকার। রাজ্য সরকারের দায়িত্ব, আদালতের অস্তিত্ব রক্ষা করা।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯