ক্লাস চলছে। তার মধ্যেই প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকা হাজির হয়ে গেলেন এসআই বা স্কুল পরিদর্শকের অফিসে! এটা আর চলবে না। প্রয়োজনে প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকারা এসআই অফিসে যেতেই পারেন, তবে স্কুল ছুটির পরে। বিজ্ঞপ্তি জারি করে নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতার ডিআই (মাধ্যমিক)।

শিক্ষা শিবিরের অভিমত, স্কুল চলাকালীন প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকারা ডিআই অফিসে গেলে স্কুলের কাজ বিঘ্নিত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত হয় পড়ুয়ারা। এ বার কলকাতার জেলা স্কুল পরিদর্শক বৈঠক করে জানিয়ে দিয়েছেন, কাজের দিনে বিকেল সাড়ে ৪টে থেকে সাড়ে ৫টা তাঁর সঙ্গে দেখা করা যাবে। শিক্ষকদের যাতে আসতে না-হয়, সেই চেষ্টা করতে হবে। যদি আসতেই হয়, প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকারাই যেন আসেন। কলকাতার ডিআই (মাধ্যমিক) চিন্ময় সরকার আগে সপ্তাহে দু’দিন দেখা করতেন। অনেক সময় দফতরের বাইরে থাকতে হয় তাঁকে। বিভাগীয় মামলার কাজে আদালতে যাওয়া, স্কুলশিক্ষা দফতরে যাওয়া লেগেই থাকে। তাই প্রধান শিক্ষক বা শিক্ষকেরা অনেক সময় পরিদর্শকের দেখা না-পেয়ে ফিরে যান। এ বার দফতরে থাকলে কাজের দিনগুলিতে নিয়মিত দেখা করবেন তিনি। কিন্তু স্কুল চলাকালীন নয়।

যাদবপুর বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক পরিমল ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘ডিআই অফিসে যত কম যেতে হয়, ততই ভাল। কিন্তু অনেক বিষয়ে বারবার ডিআই অফিসে গিয়ে তদ্বির করতে হয়। কাজ দ্রুত হলে আমাদের যেতে হয় না।’’ কাটজুনগর স্বর্ণময়ী বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক কাজি মাসুম আখতার জানান, অনেক কাজ বাকি পড়ে থাকে। পেশাগত বিষয়ে দু’বছর ডিআই অফিসে দৌড়াদৌড়ি করেও কাজ হয়নি তাঁর। শিক্ষকপদ শূন্য হয়ে গেলে নতুন শিক্ষক পাওয়ার অনুমতির জন্যও ছোটাছুটি করতে হচ্ছে। তিনিও বলেন, ‘‘কাজ দ্রুত হলে স্কুল ছেড়ে মোটেই ডিআই অফিসে যেতে চাই না।’’