শ্রীনু নায়ডু হত্যা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন ঘটনার এক প্রত্যক্ষদর্শী। সোমবার এম সম্মুখ রাও নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী আদালতে সাক্ষ্য দেন। সম্মুখ রাও ঘটনার দিন তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ের মধ্যে ছিলেন। ওই কার্যালয়েই শ্রীনুর উপরে হামলা হয়। মামলার বিশেষ সরকারি আইনজীবী সমরকুমার নায়েক বলেন, “সোমবার এম সম্মুখ রাও সাক্ষ্য দিয়েছেন। ঘটনার দিন কী হয়েছিল তার সবটা আদালতকে জানিয়েছেন।’’ আজ, মঙ্গলবারও সাক্ষ্যগ্রহণ হওয়ার কথা।

গত ৩০ জুন থেকে শ্রীনু নায়ডু হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। এর আগে বিজয় কুমার নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষ্য দিয়েছেন। গত ১১ জানুয়ারি বিকেলে খড়্গপুরের নিউ সেটলমেন্ট এলাকায় তৃণমূলের ১৮ নম্বর ওয়ার্ড কার্যালয়ে দুষ্কৃতীদের গুলিতে খুন হয় শ্রীনু। এই ওয়ার্ডেরই তৃণমূল কাউন্সিলর শ্রীনুর স্ত্রী পূজা। গত ৮ এপ্রিল মেদিনীপুর সিজেএম আদালতে শ্রীনু হত্যা মামলার চার্জশিট জমা দেয় পুলিশ। চার্জশিটে ১৪ জনের নাম রয়েছে। এর মধ্যে বাসব রামবাবু সহ ১৩ জন ধরা পড়ে গিয়েছে। কে কাশী রাও এখনও পলাতক। চার্জশিটে পুলিশ জানিয়ে দিয়েছে, রামবাবুই ঘটনার মূলচক্রী। এই মামলায় সাক্ষী রয়েছেন ৮৯ জন। এরমধ্যে বেশ কয়েকজন আদালতে গোপন জবানবন্দি দিয়েছেন। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি অন্ধ্রপ্রদেশের তানুকা থেকে রামবাবুকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এর আগে-পরে আরও ১২ জন গ্রেফতার হয়। ধৃতদের বিরুদ্ধে খুন, অস্ত্র-আইন, বিস্ফোরক-আইন সহ একাধিক জামিন অযোগ্য ধারা রয়েছে। মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য্য ছিল সোমবার। সেই মতোই মেদিনীপুরের বিশেষ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা আদালতে মামলাটি ওঠে। সাক্ষ্যগ্রহণ হয়।