প্রবল গরমে স্কুলের ক্লাস বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল সরকার। কিন্তু এর পরেই বৃষ্টি নেমেছে, গরমও অনেকটা কমেছে। এ বার স্কুলগুলিতে ক্লাস আবার চালু করা হবে কি না, সেই সিদ্ধান্ত স্কুল কর্তৃপক্ষের উপরেই ছেড়ে দিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু কোনও নির্দেশিকা ছাড়া সমস্ত স্কুলে সরকার-নির্ধারিত সময়ের আগে পঠনপাঠন শুরু সম্ভব কি না, উঠেছে সেই প্রশ্নও।

শিক্ষামন্ত্রী এর আগে বলেছিলেন, শিক্ষক সংগঠন ও অভিভাবকেরা তাঁকে এ বিষয়ে জানালে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন। এ দিন তিনি জানান, ছুটি কমানোর আবেদন তাঁর কাছে কেউ করেনি। পার্থবাবুর কথায়, ‘‘ছুটি দেওয়ার আবেদন থাকে। ছুটি তুলে নেওয়ার আবেদন কম থাকে। সুতরাং স্কুলগুলো দেখুক, কী করবে।’’ গরম সহ্যের সীমা ছাড়ানোয় রাজ্যের স্কুলগুলিতে ২০ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ক্লাস বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল সরকার। সিবিএসই এবং আইসিএসই বোর্ডকেও এ বিষয়ে রাজ্য চিঠি দিয়েছিল। কিন্তু স্কুল পুরোপুরি ছুটি না হওয়ায় প্রবল ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন শিক্ষকদের একাংশ। পরে শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, শিক্ষকেরা স্কুলে আসবেন কি না, তা স্কুলই ঠিক করুক। এ বার ফের ক্লাস চালুর বিষয়টিও সংশ্লিষ্ট স্কুলগুলির উপরে ছাড়লেন তিনি।

প্রশ্ন উঠছে সেখানেই। ৩০ জুন পর্যন্ত ক্লাস বন্ধের সময়ে নির্দেশিকা জারি করেছিল সরকার। সে ক্ষেত্রে নয়া নির্দেশিকা ছাড়া সরকারি এবং সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলে ফের ক্লাস চালু করা সম্ভব কি না, বিতর্ক দেখা দিয়েছে তা নিয়েই। যাদবপুর বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক পরিমল ভট্টাচার্য এ দিন জানালেন, তাঁরা ক্লাস শুরু করতে একেবারেই প্রস্তুত। আশা করছেন সোমবার এ বিষয়ে স্কুলশিক্ষা দফতরের কাছ থেকে নির্দেশিকা পাবেন। তা না হলে ক্লাস চালু করার ক্ষেত্রে স্কুলের প্রধান হিসেবে অসুবিধেয় পড়বেন তিনি। বঙ্গীয় স্কুলশিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতির নেতা স্বপন মণ্ডলের বক্তব্য, ‘‘হতেই পারে এক স্কুল ক্লাস চালু করবে, অন্য স্কুল করবে না। এতে পড়ুয়ারাই বঞ্চিত হবে। তাই সরকারি সার্কুলার থাকা খুবই প্রয়োজন।’’

সিবিএসই এবং আইসিএসই বোর্ডের স্কুলগুলির অধিকাংশ ২০ তারিখ থেকে কয়েক দিন ক্লাস বন্ধ রেখে ‘অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা’ নীতি নিয়েছিল। বন্ধের মেয়াদ তারা আর বাড়াচ্ছে না। এ দিন আইসিএসই বোর্ডের স্কুলগুলির সংগঠনের বৈঠকে স্থির হয়, ক্লাস আর বন্ধ রাখা হবে না। লা মার্টিনিয়ার বয়েজ এবং গার্লস, দু’টি স্কুলই ৩০ জুন অবধি ক্লাস বন্ধ রেখেছিল। এই দুই স্কুলে ২৭ জুন আবার ক্লাস শুরু হবে।