মহরমের তাজিয়া থেকে তরোয়াল ছিটকে এসে জখম হলেন এক পুলিশ আধিকারিক। মঙ্গলবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে চন্দননগরের সরিষাপাড়ায়। রাজীব পাল নামে চন্দননগর থানার ওই সাব-ইনস্পেক্টরকে চুঁচুড়া ইমামবাড়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। চন্দননগরের পুলিশ কমিশনার হুমায়ুন কবির বলেন, ‘‘পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।’’

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিকেলে চন্দননগরের উর্দিবাজার থেকে জিটি রোড ধরে তাজিয়া বের হয়। গন্তব্য ছিল চুঁচুড়ার কারবালা। বিকেল সওয়া পাঁচটা নাগাদ সরিষাপাড়ায় একটি পেট্রোল পাম্পের কাছে জিটি রোডে কয়েক জন যুবক তরোয়াল ঘোরাচ্ছিলেন। সেখানে ভিড় সামলাচ্ছিলেন রাজীববাবু। আচমকাই এক যুবকের হাত থেকে তরোয়াল ছিটকে তাঁর মাথায় এবং ঘাড়ে লাগে। জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন তিনি। 

ঘটনার জেরে আতঙ্কিত হয়ে সকলে ছোটাছুটি শুরু করে দেন। ওই যুবকেরাও ভিড়ে গা-ঢাকা দেন। আহত পুলিশ আধিকারিককে চন্দননগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁর ঘাড়ে ও মাথায় ৮টি সেলাই পড়ে। পরে তাঁকে ইমামবাড়া হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

চন্দননগর কমিশনারেট সূত্রের খবর, রাজীববাবুর বাড়ি বর্ধমানের জামালপুরে। তিনি এএসআই ছিলেন। চার মাস আগে আগে তাঁর পদোন্নতি হয়। এর পরেই শ্রীরামপুর থেকে চন্দননগর থানায় যোগ দেন তিনি।