সবংয়ে ছাত্র পিটিয়ে খুনের ঘটনা নিয়ে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। কে কী বললেন? 

সূর্যকান্ত মিশ্র: “ভয়ঙ্কর ঘটনা। রাজ্যের সমস্ত ছাত্র, যুবক, অভিভাবকদের কাছে আবেদন রাজ্য জুড়ে প্রতিবাদ বিক্ষোভ করুন। প্রতিবাদ না করলে এমন ঘটনা ঘটতেই থাকবে।”
শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “শিক্ষামন্ত্রী হিসাবে যে কোনও ছাত্রের মৃত্যুই আমার কাছে দুঃখজনক। কী করে ওই ছেলেরা কলেজে ঢুকল তা জানার চেষ্টা করছি। জেলার পুলিশ সুপার এবং দলের ছাত্র পরিষদের নেতাদের সঙ্গে কথা বলছি।”
মানস ভুঁইয়া: “তৃণমূল ছাত্র পরিষদের দুই নেতার নেতৃত্বে এই হামলা হয়েছে। ঘটনায় অত্যন্ত দুঃখিত। দোষীদের শাস্তির দাবিতে কাল থেকে রাজ্যজুড়ে আন্দোলন শুরু করব আমরা।”
সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, “ছাত্রদের মধ্যে এই ধরনের ঘটনা কাম্য নয়। আমি অত্যন্ত মর্মাহত।”
অসীম চট্টোপাধ্যায়: “এই ঘটনার নিন্দা করছি। এ কথা সত্যি ৬০-এর দশকে ছাত্র আন্দোলনেও জঙ্গিপনা, মারপিট হয়েছে। শ্রেণিশত্রু খতমের ডাক দেওয়া হয়েছিল। খুনোখুনি হয়েছে। কিন্তু কলেজের মধ্যে পিটিয়ে মারা অভূতপূর্ব। এটা আজকের ছাত্র আন্দোলনের দৈন্য দশার প্রকাশ। সমস্ত গণতান্ত্রিক শুভবুদ্ধিসম্পন্ন ছাত্রকে এই আত্মঘাতী ঝোঁকের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে।”