খাদ্য, পানীয়, মাথা বাঁচানোর আচ্ছাদন-সহ জরুরি সামগ্রী নিয়ে বরাবরের মতো বন্যাত্রাণে ঝাঁপিয়ে পড়ল রামকৃষ্ণ মিশন। মঙ্গলবার রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ জানান, তাঁদের বিভিন্ন শাখা কেন্দ্রের মাধ্যমে ত্রাণকাজ চলছে ২৬ জুলাই থেকে।

মিশনের আটপুর, বেলঘরিয়া, গৌরহাটি, ইছাপুর, কামারপুকুর ও সারদাপীঠ শাখা কেন্দ্র এবং বেলুড়ে মঠের প্রধান কার্যালয় থেকে প্লাবিত অঞ্চলে পাঠানো হয়েছে সন্ন্যাসীদের। তাঁরা ঘাটাল, দাসপুর, আরামবাগ, খানাকুল, আমতা, উদয়নারায়ণপুরের প্রায় ৩০ হাজার দুর্গতদের মধ্যে ১০০ টন চিঁড়ে, ১০ টন চিনি, ২৫০০ ত্রিপল, বিস্কুট, গুঁড়ো দুধ, হ্যালোজেন ট্যাবলেট, ব্লিচিং পাউডার বিলি করেছেন। গুজরাতেও ত্রাণ দিচ্ছে মিশন। মঠের রাজকোট ও লিমডি কেন্দ্র থেকে মেরাবি ও সুরেন্দ্রনগরের বন্যাদুর্গতদের রান্না করা খাবার বিলি করা হচ্ছে। ভদোদরা কেন্দ্র থেকে ত্রাণ যাচ্ছে সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত বনসকণ্ঠা জেলার পালনপুরেও।