• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অস্থায়ী শিক্ষকদের নবীকরণের প্রক্রিয়া শুরু ১৮ ফেব্রুয়ারি

partha
পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

রাজ্যের কলেজগুলিতে অতিথি শিক্ষকদের ‘ভেরিফিকেশন’ কাজ শুরু হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি। কলেজগুলি থেকে পাওয়া তথ্য যাচাই করার পরেই এই প্রক্রিয়া শুরু করা হচ্ছে বলে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় শনিবার জানিয়েছেন। কলেজের আংশিক সময়ের শিক্ষক, চুক্তিভিত্তিক শিক্ষক এবং অতিথি শিক্ষকদের স্টেট এডেড কলেজ টিচার্স বলা হবে এই ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ বার অতিথি শিক্ষকদের যোগ্যতা সম্পর্কিত তথ্য যাচাই করে সংশ্লিষ্ট শিক্ষককে তা জানিয়ে দেওয়া হবে। এই ‘ভেরিফিকেশন’ করছে উচ্চশিক্ষা দফতরের গঠিত চার সদস্যের কমিটি। যে সব আবেদনকারীর তথ্য যাচাই করে কমিটি সন্তুষ্ট হয়েছে তাঁদেরই এই ‘ইন্টারভিউ’-তে ডাকা হবে। আবেদনকারীদের সম্পর্কে যে তথ্য কমিটির কাছে এসেছে তা যাচাইয়ের কাজ চলবে। এবং সেই মতোই ‘ইন্টারভিউ’ চলবে। শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, যাঁরা এখনও তথ্য দিতে পারেননি, তাঁদের জন্য দ্বিতীয় পর্বে এই প্রক্রিয়া চলবে। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনায় বিষয়টি কথা বলেছিলেন। সেই মতো গোটা প্রক্রিয়া চলছে।’’ কিন্তু বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। যে ৩ ধরনের শিক্ষকদের নিয়ে এই স্টেট এডেড কলেজ টিচার্স পদ তৈরি হয়েছে তাঁদের মধ্যে অতিথি শিক্ষকেরা কলেজ থেকেই বেতন পেতেন। কিন্তু এই নতুন পদ তৈরির সরকারি আদেশনামা প্রকাশের পর অতিথি শিক্ষকেরা জানুয়ারি মাসের বেতন এখনও পাননি। ওয়েস্ট বেঙ্গল কলেজ লেকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষে গোপাল ঘোষ এদিন বলেন, ‘‘বিষয়টি জটিল হয়ে পড়ছে। বেতন কবে পাব তা আরও অনিশ্চিত হয়ে গেল।’’

‘রোপা’ আইন অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের আধিকারিকদের বেতন সংক্রান্ত যে নির্দেশ রয়েছে সে ব্যাপারেও রাজ্য সরকার নির্দিষ্ট বিধি পাঠিয়ে দিয়েছে। একই পদক্ষেপ করা হয়েছে পেনশন-এর ব্যাপারেও। এ কথা জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‘এ ব্যাপারে ১৪ ফেব্রুয়ারি নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে।’’ অধ্যক্ষ পরিষদের তরফেও বেতন সংক্রান্ত যে বৈষম্যে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছিল তা দূর করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন