রাজ্য সরকার চায়, টেস্টের প্রশ্নপত্র তৈরি করুক স্কুলই। তাই মধ্যশিক্ষা পর্ষদের পরে এ বার উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদও স্কুলগুলিকে ওই প্রশ্ন তৈরির নির্দেশ দিল।

যদিও সংসদ-সভানেত্রী মহুয়া দাস আগে বলেছিলেন, তাঁরা এই পথে যাচ্ছেন না। শুক্রবার তিনি জানান, সরকারের ইচ্ছানুযায়ী তাঁরা এই নির্দেশ দিলেন। প্রশ্নপত্র তৈরির ক্ষেত্রে স্কুলগুলিকে সংসদের নমুনা প্রশ্নপত্র অনুসরণ করতে বলা হয়েছে।

আগে পর্ষদ ও সংসদের নিয়ম ছিল, স্কুলই তৈরি করবে প্রশ্নপত্র। কিন্তু বিভিন্ন শিক্ষক সংগঠনের তৈরি প্রশ্নপত্র কিনে টেস্ট নেওয়া হচ্ছে বাম আমল থেকে। এখন তৃণমূল-সমর্থক নেতৃত্বাধীন শিক্ষক সমিতি অন্য শিক্ষক সংগঠনকে প্রায় হটিয়ে দিয়ে তাদের প্রশ্নপত্র কেনা বাধ্যতামূলক করেছে বলে অভিযোগ। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘প্রশ্নপত্র নিয়ে ব্যবসা চলছে। বামপন্থীরা এটা শিখিয়ে গিয়েছে। এটা একটা আর্থিক ইন্ডাস্ট্রি হয়ে গিয়েছে। আমরা চাই, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক টেস্টের প্রশ্ন করুক স্কুলই।’’