• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হটমিক্স মামলায় ‘স্বস্তি’ রাজ্যের

Hot Mix
প্রতীকী ছবি।

হটমিক্স প্লান্ট মামলায় আপাতত ‘স্বস্তি’ পেল রাজ্য সরকার। জাতীয় পরিবেশ আদালত জানাল, তাদের নির্দেশ মেনে রাজ্য পূর্ত দফতর, কলকাতা পুরসভা, রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ— সব পক্ষই হলফনামা জমা দিয়েছে। কলকাতা পুরসভা একটি রিপোর্টও জমা দিয়েছে। শুক্রবার লিখিত নির্দেশে এমনই জানিয়েছে আদালত। কোনও ‘কড়া’ মন্তব্য করে‌নি।

যদিও পরিবেশকর্মীদের বক্তব্য, হটমিক্স নিয়ে পরিবেশ আদালতের বিধিনিষেধের পরেও পুরনো পদ্ধতিতেই রাস্তা সারানো হচ্ছে। ফলে বায়ুদূষণের মাত্রাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। এক পরিবেশবিদের কথায়, ‘‘রাস্তা সারাই দেখলেই বোঝা যায়, পদ্ধতি কিছুই পাল্টায়নি।’’ সংশ্লিষ্ট মামলার আবেদনকারী, পরিবেশকর্মী সুভাষ দত্তের কথায়, ‘‘কোন কোন জায়গায় এখনও আগের পদ্ধতিতেই রাস্তা সারানো হচ্ছে, তা ছবি-সহ আদালতের কাছে জমা দিয়েছি।’’

প্রসঙ্গত, পাথরকুচি, বালি, চুন ও বিটুমিন দিয়ে তৈরি হয় হটমিক্স। কোনও জায়গার রাস্তার পাশেই আগুন জ্বালিয়ে তৈরি হয় ওই মিশ্রণ। সেই সময়ে নির্গত কার্বন-ডাই-অক্সাইড ও কার্বন মনোক্সাইডে দূষণ হয়। তাই পূর্ত দফতর ও কলকাতা পুরসভা, দু’পক্ষকেই পরিবেশবান্ধব পদ্ধতিতে রাস্তা সারাইয়ের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। যার প্রেক্ষিতে পুরসভা জানিয়েছিল, পামারবাজার ও গড়াগাছা, এই দুই হটমিক্স প্লান্টকে পরিবেশবান্ধব করার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। শুধু তা-ই নয়, এর বিকল্প হিসেবে কী করা যায়, তা নিয়েও অন্য বিশেষজ্ঞ সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনা করা হয়েছে।

এ দিনের নির্দেশে আদালত জানিয়েছে, মামলার নিষ্পত্তি হওয়ার আগে রাস্তা সারাইয়ের পদ্ধতি কী ভাবে আরও পরিবেশবান্ধব করা যায়, সে নিয়ে মামলার আবেদনকারী সুভাষবাবুর কোনও বক্তব্য থাকলে তা তিনি জানাতে পারেন। আগামী ৯ ডিসেম্বর পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন