নারদ স্টিং অপারেশন কাণ্ডে সিবিআইয়ের তলব পেয়ে সোমবার নিজাম প্যালেসে তাদের দফতরে হাজির হন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং পুলিশকর্তা এসএনএস মির্জা। এ দিন ‘ভয়েস টেস্টিং রেকর্ডিংয়ের’ জন্য সুব্রতবাবু, মির্জা ছাড়াও সাংসদ অপরূপা পোদ্দার এবং কাকলি ঘোষদস্তিদারকে ডেকেছিল সিবিআই।

সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্ব নির্ধারিত দলীয় কর্মসূচি থাকায় দুই সাংসদ কাকলি ও অপরূপা এ দিন সিবিআইয়ের অফিসে হাজিরা দিতে পারছেন না বলে চিঠি দিয়েছেন। কয়েক দিনের মধ্যেই তাঁরা সিবিআইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে ‘ভয়েস টেস্টিং রেকর্ড’ করবেন বলে ওই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে জানিয়েছেন দুই সাংসদ।

সুব্রতবাবু এ দিন বেলা ১১টা নাগাদ সিবিআইয়ের দফতরে পৌঁছন। তার কিছু আগেই সিবিআই দফতরে হাজির হন মির্জা। সিবিআই দফতর থেকে বেরিয়ে এসে সুব্রতবাবু বলেন, ‘‘নারদ-কাণ্ডে জড়িত সকলকেই ডাকা হয়েছে। এ দিন আমার ভয়েস টেস্ট রেকর্ডিং করা হয়েছে। সিবিআইয়ের তদন্তকারীরা একটি লিখিত বয়ান দিয়েছিলেন। সেটা আমায় পড়তে হয়েছে।’’ তবে এ ক্ষেত্রে হয়রানির কোনও প্রশ্ন নেই বলে জানান সুব্রতবাবু। তিনি বলেন, ‘‘এটা তদন্তের একটি প্রক্রিয়া বলেই মনে করি।’’