• প্রদীপ্তকান্তি ঘোষ
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বন্দিদের মধ্যে খোঁজ সেরা গায়কের

Singing Competition
প্রতীকী ছবি।

এ যেন বদ্ধ ঘরের বাইরে বেরিয়ে জগৎ দেখার সুযোগ।

আর মাত্র চব্বিশ ঘণ্টার অপেক্ষা। রবিবার রাতেই পরিষ্কার হয়ে যাবে জেল কুঠুরির বাইরে বেরিয়ে পেশাদার মঞ্চে গান গাওয়ার সুযোগ কে বা কারা পাবেন। বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পীদের সঙ্গে একই মঞ্চে অনুষ্ঠান করার স্বপ্ন পূরণ হবে কার কার। আপাতত রাজ্যের ১২টি জেলের ছ’জন বন্দি-সঙ্গীতশিল্পী তা নিয়েই উত্তেজিত। কারা দফতরের উদ্যোগে আয়োজিত ‘সুপার সিঙ্গার ইনমেট’ রিয়্যালিটি শোয়ের চূড়ান্ত রাউন্ডের আগে তাই ওই বন্দিরা ব্যস্ত সঙ্গীতচর্চায়। 

কাল, রবিবার সন্ধ্যায় আলিপুরে প্রেসিডেন্সি জেলের মাঠে ওই রিয়্যালিটি শোয়ের চূড়ান্ত পর্ব। সেখানে বিচারক হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা সঙ্গীত জগতের বিশিষ্টদের। কারা দফতরের ডিজি অরুণ গুপ্ত জানান, জেলবন্দিদের অনেকেই খুব ভাল গান করেন। তাঁদের সেই সঙ্গীত প্রতিভাকে সামনে আনতেই ডিসেম্বরে ‘সুপার সিঙ্গার ইনমেট’-এর আয়োজন করা হয়েছিল। 

আরও পড়ুন: পার্ক সার্কাসে প্রতিবাদীদের জন্য তাঁবু খাটানোর দাবি

কারা দফতর সূত্রের খবর, রাজ্যের আটটি সেন্ট্রাল জেল ও চারটি মুক্ত জেলের ৭০-৮০ জন বন্দি প্রথম রাউন্ডে অংশ নিয়েছিলেন। তার মধ্যে ১৯ জন দ্বিতীয় রাউন্ডে পৌঁছন। পরে সেখান থেকে চূড়ান্ত রাউন্ডে পৌঁছন ছ’জন বন্দি। তার মধ্যে থেকেই রবিবার প্রথম তিন স্থানাধিকারীকে বেছে নেবেন বিচারকেরা। রবিবার সন্ধ্যায় ওই অনুষ্ঠান দেখতে পাবেন সকলেই। এক কারা আধিকারিকের কথায়, ‘‘দর্শকেরা দেখুন শুধুই টিভিতে নয়। জেলের ভিতরেও কত গুণী মানুষ ভাল গান করেন।’’

আরও পড়ুন: লিজ় শেষেও দখলে সরকারি রেস্তরাঁ, বিতর্ক

আজ, শনিবার প্রেসিডেন্সি জেলের মাঠে শুরু হওয়ার কথা ‘উইন্টার কার্নিভাল’-এর। শেষ হবে আগামিকাল, রবিবার। কারা দফতর সূত্রের খবর, প্রতিযোগিতার প্রথম স্থানাধিকারীকে পেশাদার মঞ্চে গান গাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হবে। সেই সঙ্গে প্রতিযোগিতায় জয়ী বন্দি-গায়কের গানের অ্যালবাম প্রকাশের ব্যবস্থাও করবে কারা দফতর। 

এ রাজ্যে সারা বছরই বিভিন্ন ধরনের মেলা, উৎসব চলে। কারা দফতরের এক আধিকারিকের কথায়, ‘‘ওই সব অনুষ্ঠানে যদি এই বন্দিরা গান গাওয়ার সুযোগ পান, তাঁদের জীবনের নতুন দিগন্ত খুলে যাবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন