• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ইলিশের আশা জাগিয়ে চলবে বৃষ্টি

Hilsa
রুপোলি শস্য: বৃহস্পতিবার মরসুমের প্রথম ইলিশ এল ডায়মন্ড হারবারের নগেন্দ্রবাজারে। ৫০০ গ্রাম থেকে ১ কেজি ওজনের প্রায় ৪০ টন ইলিশ এসেছে। ১৫ জুন গভীর সমুদ্রে পাড়ি দেন মৎস্যজীবীরা। আড়তদার সমিতির সম্পাদক জগন্নাথ সরকার বলেন, ‘‘ভাল ইলিশ এসেছে। পাইকারি বাজারে ৫০০-৬৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।’’ মৎস্যজীবীদের মতে, খোলা বাজারে ইলিশের দাম হতে পারে ৬০০-৮০০ টাকা। ছবি: দিলীপ নস্কর

পাকিস্তান থেকে উত্তরবঙ্গের উপর দিয়ে উত্তর-পূর্ব ভারত পর্যন্ত একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা বিস্তৃত রয়েছে। তার প্রভাবে আগামী পাঁচ দিন উত্তরবঙ্গের পাহাড় এবং ডুয়ার্সের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির সতর্কবার্তা দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। উত্তরবঙ্গের কোনও কোনও এলাকায় অতি ভারী বৃষ্টিও হতে পারে।

হাওয়া অফিসের খবর, নিম্নচাপ অক্ষরেখা ও সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর যুগলবন্দিতে গাঙ্গেয় বঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই বৃষ্টি হতে পারে। তবে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টির সতর্কতা নেই। অতিবৃষ্টি না-হলে তা কৃষিকাজের সহায়ক হবে বলেই মনে করছেন আবহবিদেরা। এই নিয়মিত বৃষ্টি ইলিশপ্রেমীদের মনে আশা জাগাচ্ছে। মৎস্যবিজ্ঞানীদের মতে, ঝিরঝিরে বৃষ্টি, সঙ্গে সাগরের হাওয়া বইলে ইলিশের ঝাঁক গঙ্গায় ঢোকে। সমুদ্রেও ট্রলার নিয়ে পাড়ি দিতে পারেন মৎস্যজীবীরা। সব মিলিয়ে কয়েক দিনের মধ্যেই বাজারে ভাল পরিমাণে ইলিশ ঢুকতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। সাগরে ইলিশের ভাল জোগান রয়েছে।

এ বার গ্রীষ্মে টানা ঝড়বৃষ্টি হয়েছে। ফলে সেচে জলের জোগান অব্যাহত ছিল। ভূগর্ভেও জল সঞ্চিত হয়েছে বলে মনে করছেন ভূবিজ্ঞানীরা। জুনেও নিয়মিত বৃষ্টি হওয়ায় সেই সঞ্চয় বাড়ছে বলে মনে করছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: স্বাদে-গন্ধে শ্রেষ্ঠ ইলিশ আসছে এ বার, সৌজন্যে লকডাউন

মৌসম ভবন বৃহস্পতিবার জানায়, দেশে বর্ষার অগ্রগতি স্বাভাবিক। উত্তরপ্রদেশের কিছু এলাকায় বর্ষা পৌঁছেছে। সপ্তাহান্তে ওই রাজ্যে বর্ষা ছড়িয়ে পড়তে পারে। তার জেরে উত্তরপ্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডে জোরালো বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। ২৫ জুন নাগাদ দিল্লিতে বর্ষা ঢুকতে পারে।

আরও পড়ুন: মরসুমের প্রথম ইলিশ, সাতসকালেই বিক্রি শেষ

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন