গরমে কার্যত ঝলসে যাচ্ছে গোটা দক্ষিণবঙ্গ। আগামী শনিবার পর্যন্ত পরিস্থিতি বদলানোর কোনও সম্ভাবনাই নেই। উল্টে ঝাড়খণ্ড-বিহার থেকে শুকনো গরম বাতাস এ রাজ্যে ঢোকার ফলে তাপমাত্রা এবং অস্বস্তি আরও বাড়িয়ে দিতে পারে।

ইতিমধ্যেই আসানসোলে ৪২ ডিগ্রির রেকর্ড ছুঁয়েছে পারদ। কলকাতার কাছে দমদমের তাপমাত্রা ৪০-এর দোরগোড়ায়। বহরমপুর, পানাগড়, পুরুলিয়া, শ্রীনিকেতন, বাঁকুড়াতে পারদ ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭.৮ ডিগ্রি।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আগামী দু’তিন দিন কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, নদিয়ায় আরও ২ থেকে ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই জেলাগুলিতে গরম যেমন বাড়বে, তেমনই আদ্রতাজনিত অস্বস্তিও বৃদ্ধি পাবে। একই ভাবে কয়েকটি জেলায় বৈশাখের চোখরাঙানি আরও বাড়বে।

আরও খবর: দুঃসহ রোদ ও জলীয় বাষ্পেই অস্বস্তি চরমে

এমনকি আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা আশঙ্কা করেছেন, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, দুই বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রামে তাপপ্রবাহও হতে পারে। এই ক’দিন হাঁসফাঁস গরম থাকলেও, আলিপুরের আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ষষ্ঠ দফার ভোটের দিন অর্থাৎ রবিবার গরম কিছুটা কম থাকতে পারে। ১২ থেকে ১৪ মে-র মধ্যে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে দক্ষিণবঙ্গে।