• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নতুন প্রবেশদ্বার হবে, পাহারায় থাকবে পুলিশ

ground
পৌষমেলার মাঠ ঘুরে দেখছেন হাইকোর্টের নির্বাচিত কমিটির সদস্যেরা। রবিবার শান্তিনিকেতনে। —নিজস্ব চিত্র

পে-লোডারে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল পৌষমেলার মাঠের একমাত্র প্রবেশদ্বার। তার ঠিক এক মাস তিন দিন পরে ফের পে-লোডার দিয়েই সেই জায়গা পরিষ্কার করা হল। আজ, সোমবার থেকে নতুন প্রবেশদ্বার তৈরি হওয়ার কথা। তার আগে পুলিশের তরফে সেখানে বসানো হল ব্যারিকেড। যান চলাচল নিষিদ্ধ করার পাশাপাশি হল সর্বক্ষণের সশস্ত্র নিরাপত্তার ব্যবস্থাও।

বিশ্বভারতী সংক্রান্ত সাম্প্রতিক বিতর্কের স্থায়ী সমাধানের খোঁজে কলকাতা হাইকোর্টের তরফে গড়ে দেওয়া চার সদস্যের কমিটি, বীরভূম জেলা প্রশাসন এবং বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ রবিবার বৈঠকে বসেন। বিশ্বভারতী সূত্রে জানা গিয়েছে, ত্রিপাক্ষিক ওই বৈঠকে ভুবনডাঙা বাঁধ সংলগ্ন প্রবেশদ্বারটি তাণ্ডবের আগের অবস্থায় ফেরানোর নির্দেশ দিয়েছে নবগঠিত কমিটি। আপাতত এই দ্বার নির্মাণের খরচ বিশ্বভারতীকেই করতে হবে বলে জানা গিয়েছে।

রবিবার সকালে কমিটির সদস্যেরা প্রথমে পৌষমেলার মাঠ পরিদর্শন করেন। তার পরে শুরু হয় বৈঠক। বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের তরফে উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী, ভারপ্রাপ্ত কর্মসচিব অশোক মাহাতো ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে জেলা পুলিশ সুপার শ্যাম সিংহ, জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসু-সহ একাধিক আধিকারিক উপস্থিত ছিলেন। প্রায় তিন ঘণ্টার বৈঠক শেষে বিশ্বভারতী ও জেলা প্রশাসনের তরফে যৌথ প্রেস বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। সেখানে জানানো হয়, বিশ্বভারতী ও জেলা প্রশাসন একত্রে কাজ করবে। বিশ্বভারতী সংক্রান্ত যে কোনও সমস্যা আলোচনা ও তথ্য আদানপ্রদানের মাধ্যমে মেটানো হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। 

বিশ্বভারতী সূত্রে জানা গিয়েছে, বিশ্বভারতীর নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য কমিটি জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছে। মেলা মাঠের প্রবেশদ্বার ভেঙে ফেলার পরে বিভিন্ন জিনিস চুরির যে অভিযোগ বিশ্বভারতীর তরফে করা হয়, তার সূত্র ধরে কমিটি জানিয়েছে, পৌষমেলার মাঠ ও সংলগ্ন এলাকা থেকে জিনিস চুরি গেলে তার দায়িত্ব নিতে হবে জেলা প্রশাসনকেই। বিশ্বভারতী সূত্রের দাবি, জেলা প্রশাসন বৈঠকে জানিয়েছে বিশ্বভারতীর নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে ১০০টি সিসি-ক্যামেরা লাগাবে। তার মধ্যে ২০টিরও বেশি লাগানো হবে পৌষমেলার মাঠ সংলগ্ন এলাকায়।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন