দার্জিলিংয়ে চলন্ত টয় ট্রেনের দরজা থেকে ঝুঁকে নিজস্বী তুলতে গিয়ে পড়ে মারা গেলেন রিষড়ার এক পর্যটক। বুধবার সকালে ঘুম ও সোনাদা স্টেশনের মাঝে এই ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ সূত্রে খবর, মৃতের নাম প্রদীপ সাক্সেনা (৫৩)। তিনি হুগলির রিষড়ার বাঙুর পার্কের বাসিন্দা। সেখানে একটি সাইবার ক্যাফে চালাতেন। দার্জিলিং হিমালয়ান রেলের অধিকর্তা এম কে নার্জারি বলেন, ‘‘এই প্রবণতা নতুন নয়। বার বার বলা সত্ত্বেও কিছুতেই সাবধান করা যাচ্ছে না যাত্রীদের।’’

এ দিন স্ত্রী নম্রতা এবং মেয়ে অনুশ্রীকে নিয়ে এনজেপি ফিরছিলেন প্রদীপ। নিজস্বী তোলার সময় ট্রেনের ঝাঁকুনিতে আচমকা নীচে পড়ে যান তিনি। দার্জিলিং জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মারা যান তিনি। খবর পেয়ে রিষড়া থেকে রওনা দিয়েছেন প্রদীপের দাদা সঞ্জীব। 

পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব গোটা ঘটনাটি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানান। তখনই মুখ্যমন্ত্রী শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিষয়টি দেখতে নির্দেশ দেন।

এ দিনই দেহটির ময়নাতদন্ত হয়েছে। গৌতম দেব বলেন, ‘‘ওই পরিবারকে রিষড়া পর্যন্ত পৌঁছে দিতে পর্যটন দফতর সমস্ত রকম সাহায্য করছে।’’ এ দিন সন্ধ্যায় প্রদীপের বাড়িতে গিয়ে দেখা করে আসেন রিষড়ার পুরপ্রধান বিজয় মিশ্র।