দক্ষিণবঙ্গ ছেড়ে এবার ‘ছেলেধরা’ গুজব ছড়াল উত্তরবঙ্গেও। সোমবার সকালে স্রেফ সন্দেহের বশে, গুজবের জেরে ছেলেধরা বলে থেঁতলে খুন করা হল মধ্যবয়সী এক ভিক্ষাজীবীকে। ওই ব্যক্তির পরিচয় পুরোপুরি না জানা গেলেও, প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, তিনি বহুরুপী সেজে বিভিন্ন বাজার এলাকায় অর্থোপার্জন করতেন।

ঘটনাটি সোমবার ঘটেছে ডুয়ার্সের নাগরাকাটা থানা এলাকার শুলকাবাড়ি বাজারে। প্রত্যক্ষদর্শীদের একটি অংশ পুলিশকে জানিয়েছেন, সোমবার সকালে ওই ব্যক্তি মহিলা সেজে এলাকায় ঘুরছিলেন। নাগরাকাটা এলাকার বাসিন্দারা পুলিশকে জানিয়েছেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই ওই এলাকায় ‘ছেলেধরা’ র গুজব ছড়াচ্ছে।

সোমবার সকালে ওই ব্যক্তিকে মেয়েদের পোশাকে উদ্দেশ্যবিহীন ভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখে শুলকাবাড়ি বাজারে কয়েকজন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে। সেই সময় কেউ কেউ ওই ব্যক্তিকে ছেলেধরা বলে সন্দেহপ্রকাশ করে। অভিযোগ, তারপরেই কয়েকজন ঝাঁপিয়ে পড়ে ওই ব্যক্তির উপর। বাজারের মধ্যেই বাঁশ,লাঠি দিয়ে মারা শুরু করে। প্রত্যক্ষদর্শীদের কয়েকজন পুলিশকে জানিয়েছেন, রাস্তার পাশে ফেলে রাখা পাথর দিয়েও থেঁতলে মারা হয়।

আরও পড়ুন: স্বামীকে খাটের সঙ্গে বেঁধে পুড়িয়ে খুন! আরামবাগে প্রেমিক-সহ গ্রেফতার স্ত্রী

 

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিশ বাহিনী। মালের এসডিপিও দেবাশিস চক্রবর্তী বলেন,‘‘প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, গুজবের জেরেই এই ঘটনা। আমরা এই গনপিটুনির সঙ্গে যুক্ত কয়েকজনের নাম জানতে পেরেছি। তাদের গ্রেফতার করার চেষ্টা চলছে। এখনও মৃতের পরিচয় এবং ঠিকানা জানা যায়নি।” তবে প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানতে পেরেছে মৃত ভবঘুরে। তাঁর সামান্য মানসিক সমস্যাও ছিল। সেই কারণেই তিনি বিভিন্ন জায়গায় অনেক সময় উদ্দেশ্যবিহীন ভাবে ঘুরে বেড়াতেন।

আরও পড়ুন: বনগাঁ মন্তব্যের জের? হাইকোর্টে বিচারপতির এজলাস বয়কট সরকারি আইনজীবীদের