• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কড়া নজর সত্ত্বেও মজুতদারি, ধৃত ১

Stock
প্রতীকী ছবি।

টাস্ক ফোর্স গড়ে আগেই মজুতদারি রুখতে উদ্যোগী হয়েছে রাজ্য সরকার। এ বার কালোবাজারির বিরুদ্ধে অত্যাবশ্যক পণ্য আইন রূপায়ণ করতে সব রাজ্যের মুখ্যসচিবদের কাছে নির্দেশিকা পাঠালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয় ভাল্লা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বুধবার এই বিষয়ে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিবের নেতৃত্বে পৃথক একটি এনফোর্সমেন্ট টাস্ক ফোর্স তৈরির করার কথা ঘোষণা করেছেন।

রাজ্য প্রশাসনের শীর্ষ মহলের বক্তব্য, সরকার ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করেছে। এনফোর্সমেন্ট বিভাগকে সক্রিয় করা হয়েছে। জেলায় জেলায় পুলিশ, বিডিও, এসডিও, ডিএম, এসপি-রা নজর রাখছেন। সর্বোপরি কেন্দ্রীয় ভাবে গঠিত রাজ্যের কমিটিগুলি জরুরি পরিষেবা, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের জোগানের উপরে নজর রাখছে। অভিযোগ পেলে উপযুক্ত আইনি পদক্ষেপের আশ্বাসও দিচ্ছে রাজ্য। নানা অভিযোগে এই ক’দিনে বেশ কয়েক জন রেশন ডিলারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গৃহীত হয়েছে। খাদ্যসামগ্রী বেআইনি ভাবে মজুত করার অভিযোগে এ দিন নওদার ত্রিমোহিনী এলাকায় এক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, ধৃত জয়দেব সাহার বাড়ির গুদামে ২৪৫ কুইন্টাল চাল, ৩৯ কুইন্টাল গম পাওয়া গিয়েছে। সেগুলি রেশনের খাদ্যসামগ্রী বলেই সন্দেহ করা হচ্ছে।

নজরদারির ফাঁকেই বিভিন্ন জেলায় কালোবাজারি ও মজুতদারি চলছে বলে অভিযোগ। পাইকারি ব্যবসায়ীরা জানান, অনেক জায়গাতেই পণ্যের জোগানে টান পড়ছে। বাইরে থেকে ট্রাক কম আসছে। ফলে উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গে দাম চড়ছে, হচ্ছে কালোবাজারিও। চাল, লবণ, তেল, ফলের দাম বেড়েছে কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, মালবাজারে। শিলিগুড়ির পাইকারি বাজারেও দাম বেড়েছে কিছু পণ্যের। 

কালোবাজারি রুখতে লকডাউনের প্রথম দিকে বাজারে ঘুরছিলেন প্রশাসনের কর্তারা। কিন্তু তার পরে চাল, ডাল আলু, আনাজের দাম বেশি নেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে বীরভূমের সিউড়ি, রামপুরহাট ও বোলপুরের বেশ কিছু জায়গায়। বাঁকুড়া শহর এবং বিষ্ণুপুরের কিছু জায়গায় নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বৃদ্ধির অভিযোগ উঠছে। তবে জেলা পুলিশ জানায়, দুর্নীতি দমন শাখা বাজারগুলিতে নজর রেখেছে। অনিয়ম দেখলেই পদক্ষেপ করা হচ্ছে।

কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, দক্ষিণ ও উত্তর ২৪ পরগনাতেও কালোবাজারি ও মজুতদারির অভিযোগ উঠেছে। পশ্চিম বর্ধমানের ছবিটা অন্য রকম বলে দাবি জেলা প্রশাসনের। সরকারি সূত্রের খবর, জেলার প্রায় সর্বত্রই দোকানে দোকানে, বাজারে অভিযান চালানো হচ্ছে। নজর রাখা হচ্ছে ফ্লাইং স্কোয়াড গড়ে। বড় বড় দোকানে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দামের তালিকা টাঙিয়ে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিনfeedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন