তরুণ প্রজন্মের স্বার্থের সঙ্গে জড়িত নানা বিষয়ে অভিন্ন কর্মসূচি তৈরি করে একত্রে রাস্তায় নামবে বাম ও কংগ্রেসের যুব সংগঠন। কেন্দ্রের আর্থিক নীতি এবং একের পর এক রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আগামী ৩০ নভেম্বর চিত্তরঞ্জন থেকে ‘লং মার্চ’ শুরু হচ্ছে বাম শ্রমিক সংগঠনগুলির ডাকে। তার সমর্থনে আগামী ২৫ নভেম্বর মৌলালি যুব কেন্দ্রে কনভেনশনে বাম যুবরা আমন্ত্রণ জানিয়েছে যুব কংগ্রেসকে। ওই কর্মসূচি থেকেই দু’পক্ষের যুবদের একসঙ্গে পথ চলা শুরু হবে।

দীনেশ মজুমদার ভবনে মঙ্গলবার আলোচনায় বসেছিল ৬টি বামপন্থী যুব সংগঠন এবং প্রদেশ যুব কংগ্রেসের নেতৃত্ব। আসন্ন কনভেনশনে প্রয়োজনে পতাকা ছাড়াই অংশগ্রহণের জন্য প্রদেশ যুব কংগ্রেস সভাপতি শাদাব খানকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ডিওয়াইএফআইয়ের রাজ্য সম্পাদক সায়নদীপ মিত্র। আলোচনায় ঠিক হয়েছে, অভিন্ন কর্মসূচির খসড়া নিজেরা তৈরি করে বাম ও কংগ্রেসের যুব সংগঠন আরও একটি কনভেনশন করে তাকে চূড়ান্ত আকার দেবে। ‘লং মার্চে’র পাশাপাশি কেন্দ্রের আর্থিক নীতির প্রতিবাদে আগামী ৮ জানুয়ারি দেশ জুড়ে সাধারণ ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলি। সেই কর্মসূচিতে শ্রমিক সংগঠনহগুলির সঙ্গে দু’তরফের যুবরা একসঙ্গে সামিল হবে। শাদাব ও সায়নদীপের বক্তব্য, প্রথম বার তাঁদের মুখোমুখি আলোচনা যথেষ্ট ‘ইতিবাচক’ হয়েছে।