সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কোয়েল কণ্ঠ

শিবপ্রসাদের পরের ছবিতে কোয়েল মল্লিক। লিখছেন সংযুক্তা বসু।

নতুন বছরের দ্বিতীয় মাসে এ যেন অন্য কোয়েল।

ফিরে আসছেন আবার নিউ এজ ছবিতে।

 এ বার তাঁকে দেখা যাবে ‘ইচ্ছে’, ‘মুক্তধারা’, ‘রামধনু’র পরিচালক শিবপ্রসাদ ও নন্দিতা রায়ের ছবিতে।

ছবির নাম ‘কণ্ঠ’! কোয়েলের চরিত্রের নাম রোমিলা। শ্যুটিং শুরু মে মাসে।

এর আগে অবশ্য তিনি ‘হেমলক সোসাইটি’র মতো নতুন ধারার বাংলা ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। কিন্তু হঠাৎ কী হল যে ‘ও মধু’র পৃথিবী থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন কোয়েল!

 ‘অরুন্ধতী’ বা ‘হিরোগিরি’ তেমন ভাল চলল না বলেই কি তিনি এখন নিউ এজ ছবিতে অভিনয় করতে চাইছেন?

প্রশ্ন শুনে গম্ভীর ভাবেই কোয়েল বলেন, তিনি সব ধরনের দর্শকের কাছে পৌঁছতে বরাবরই আগ্রহী। সে কারণেই এর আগেও রাজা সেনের ‘দেবীপক্ষ’, সন্দীপ রায়ের ‘হিটলিস্ট’ আর ‘চার’, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘জ্যাকপট’ ছবিতে অভিনয় করেছেন।

‘‘মূলধারার বাণিজ্যিক ছবিতে অভিনয়ের পাশাপাশি মননশীল বাংলা ছবিতেও কাজ করতে চাই।  শহুরে দর্শকের কাছে পৌঁছতে হলে নিউ এজ ছবিতে অভিনয় করতে হবেই। শিবপ্রসাদ আর নন্দিতাদির চিত্রনাট্য শুনেই আমার ভাল লেগে যায়। মনে হয় আমি যেন এত দিন রোমিলা চরিত্রের জন্যই অপেক্ষা করছিলাম।’’

কোয়েলের কাস্টিং নিয়ে কী বলছেন শিবু আর নন্দিতা? এর আগে তাঁরা ঋতুপর্ণা, সোহিনী, রচনা, গার্গীর সঙ্গে কাজ করেছেন। সেখানে হঠাৎ কোয়েলের মধ্যে কী দেখলেন যে এই চরিত্রে তাঁকে নিলেন?

 ‘‘কোয়েলকে যারা কাছ থেকে চেনে তারা জানে ওর হাসি কী প্রাণখোলা।  কী অসম্ভব প্রাণবন্ত মেয়ে ও। রোমিলা চরিত্রে কাকে নেব ভাবতে গিয়েই তাই কোয়েলের নাম প্রথম মনে এসেছিল।’’ বলেন শিবপ্রসাদ। একই বক্তব্য নন্দিতারও।

‘‘অনেক দিন ধরেই কোয়েলকে নিয়ে কাজ করব ভাবছি। এই বার এমন একটা গল্প লিখলাম যেখানে কোয়েলকে নেওয়া যায়। আর কিছু দিনের মধ্যে ওয়ার্কশপও শুরু হবে’’, বলেন নন্দিতা। 

একজন রেডিও জকিকে নিয়ে গল্প। যদিও এখনও রেডিও জকির চরিত্রে কে অভিনয় করবেন ঠিক হয়নি।

আগের ছবিগুলোর মতো এই ছবিতেও শিবপ্রসাদ-নন্দিতারা তুলে ধরছেন সমাজের একটি বিশেষ সত্য।

 রেডিও স্টেশনের কর্মীরা যাঁরা শ্রোতাদের সুখদুঃখের কথা শোনেন রেডিয়োর ও প্রান্তে বসে,  সাধারণ মানুষকে আনন্দ দেওয়ার চেষ্টা করেন, বিনোদনের মাধ্যমে শ্রোতাদের মুখে হাসি ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেন, কত না টানাপড়েন লুকিয়ে থাকে তাঁদের  ব্যক্তিগত জীবনেও। এমনই পটভূমিতে ছবির গল্প দানা বাঁধবে।

কিন্তু মূলধারার ছবির ইমেজ ভেঙে কোয়েল নিজেকে প্রমাণ করতে পারবেন তো? 

এই প্রসঙ্গে ছবির প্রযোজক অতনু রায় চৌধুরীর কথা হল, ‘‘অবশ্যই পারবে কোয়েল। বাংলা ছবির ইন্ডাস্ট্রি ওকে সে ভাবে ব্যবহারই করতে পারেনি। আশা করা যায় শিবপ্রসাদ আর নন্দিতার ছবিতে কোয়েলের অভিনয় ক্ষমতা পুরোপুরি ব্যবহার করা হবে। নতুন করে আবিষ্কৃত হবে কোয়েল।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন