অপেক্ষাটা একটু দীর্ঘ হয়ে গেল। কিন্তু কথাতেই আছে সবুরে মেওয়া ফলে। সাত বছর পরে অ্যালবাম নিয়ে আসছে বাংলা ব্যান্ড ‘চন্দ্রবিন্দু’। এটি তাদের দশম অ্যালবাম। গানও থাকছে ১০টি। 

অনলাইন প্ল্যাটফর্মের যুগে অ্যালবামের জনপ্রিয়তা বা বিক্রি কমে গিয়েছে। এসেছে সিঙ্গল, ইউটিউব রিলিজ়... কিন্তু নস্ট্যালজিয়া যে বাঙালির পিছু ছাড়ে না! যে কারণে ফিজ়িক্যাল ফরম্যাটেই নতুন অ্যালবাম থাকবে বলে জানালেন অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। ‘‘আমরা ক্যাসেট, সিডি, পেনড্রাইভ সব যুগ দেখে নিয়েছি। বই হাতে নিয়ে পড়ার মজার মতো গানের অ্যালবামও কালেক্টর্স আইটেম,’’ বলছিলেন গায়ক। ১৯৯৭ থেকে ‘চন্দ্রবিন্দু’র পথ চলা শুরু। খানিক মজা, খানিক প্রেম, একটু ব্যঙ্গ সব মিলিয়ে একটা সিগনেচার তৈরি করেছিল ব্যান্ড। তবে নবম অ্যালবামে ছকভাঙার একটা প্রয়াস ছিল। যে কারণে অ্যালবামের নামও দেওয়া হয়েছিল ‘চন্দ্রবিন্দু নয়’। কিন্তু শ্রোতাদের কাছে সেই অ্যালবাম তেমন জনপ্রিয়তা পায়নি। তবে নতুন অ্যালবামে পুরনো ফ্লেভারই নিয়ে আসছেন ‘চন্দ্রবিন্দু’র সদস্যরা। 

অ্যালবাম আনতে এতটা সময় লাগল কেন? ‘‘নিয়মিত সিনেমার গান, বিজ্ঞাপন, কনসার্ট করেছি। কিন্তু বছর দুয়েক ধরে অ্যালবামের পরিকল্পনা করলেও তা বাস্তবায়িত হচ্ছিল না,’’ বললেন অনিন্দ্য। 

কোনও গান চন্দ্রিলের, কোনওটা অনিন্দ্যর লেখা। সুর সৃষ্টিতে উপল আর অনিন্দ্যই। সম্প্রতি তাঁদের ‘প্রধানমন্ত্রী প্লিজ়, আমাকে একটা মেয়ে দেখে দিন’ জনপ্রিয় হয়েছে। এই গানটি থাকছে অ্যালবামে। পাঁচটি গান চূড়ান্ত। কাটাছেঁড়া চলছে বাকি পাঁচ নিয়ে। তবে অনিন্দ্য আশ্বাস দিলেন, নতুন অ্যালবাম এই বছরেই আসবে।