আজ দেবের জন্মদিন। আর এই শুভদিনে প্রযোজক দেব রিলিজ করলেন তাঁর পরবর্তী ছবি ‘কবীর’-এর পোস্টার। অনিকেত চট্টোপাধ্যায় পরিচালিত ছবিটি মুক্তি পাবে পয়লা বৈশাখে। এ ছবির কাহিনি সন্ত্রাসবাদের উপর। মুম্বই ব্লাস্টকে মাথায় রেখেই অনিকেত ছবির গল্প লিখেছেন। দেব জানালেন, ‘‘আসলে অনিকেতদা’র সঙ্গে আমার অন্য একটা গল্প নিয়ে ছবি করার কথা ছিল। তার পর আমি ‘কবীর’-এর গল্প শুনি। অনিকেতদা যখন গল্পটা বলল, টানটান হয়ে শুনেছিলাম। এত ভাল লেগেছিল যে, সঙ্গে সঙ্গে ঠিক করি, আগে এই ছবিটা বানাব। এক মাসের মধ্যে আমরা শ্যুটিং শুরু করি।’’

মুম্বইয়ের জাভেরি বাজার-সহ বিভিন্ন জায়গায় ব্লাস্ট কী ভাবে হয়েছিল, সেই ঘটনা নিয়েই গল্প সাজানো হয়েছে। তার মানে দেব কি যারা ব্লাস্ট করিয়েছিল তাদের দলে, না কি যারা ভিকটিম তাদের? উত্তরে অবশ্য দেব বললেন, ‘‘আমার বা রুক্মিণীর চরিত্র নিয়ে আমি এত তাড়াতাড়ি কিছু বলতে চাই না। চরিত্রগুলো নিয়ে একটু রহস্য আছে। সেটা আপাতত থাক। তবে শুধু এটুকু বলব, দেশভক্তির উপর বা মুম্বই ব্লাস্টের উপর সম্ভবত বাংলায় এটা প্রথম ছবি।’’

ছবির শ্যুটিং হয়েছে কলকাতায়। নায়িকা রুক্মিণীর পা ভেঙে যাওয়ায় দু’মাসের জন্য শ্যুটিং পিছিয়ে গিয়েছিল। এ বার জানুয়ারিতে বাকি অংশের শ্যুটিং হবে দুরন্ত এক্সপ্রেস এবং মুম্বইয়ে। দুরন্তও এই ছবির একটা গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র। ‘‘আমরা ওই এক্সপ্রেসে চেপে কলকাতা থেকে মুম্বই যাব শ্যুট করতে করতে। আবার ওখান থেকে কলকাতা ফিরব। এ রকম আগে হয়েছে বলে তো আমার জানা নেই। পুরো ট্রেন বুক করা হয়েছে। যাতায়াত নিয়ে তিন দিনের মধ্যেই ছবির প্রায় ছবির পঞ্চাশ ভাগ শ্যুটিং হয়ে যাবে। রিয়্যাল ট্রেনের সাউন্ড ও পরিপার্শ্ব সেট লাগালে পাওয়া যেত না। তাই ট্রেনে কী ভাবে শ্যুট করা হবে, তা রেকি করতে আমরা ট্রেনে তিন বার মুম্বই গিয়েছি,’’ জানালেন দেব।