নীহাররঞ্জন গুপ্তর অন্যতম পছন্দের জায়গা ছিল পুরী। সেখানে বসেই তিনি কিরীটীর একাধিক গল্প লিখেছিলেন। তাই ‘নীলাচলে কিরীটী’র আউটডোর লোকেশন হিসেবে পরিচালক অনিন্দ্যবিকাশ দত্ত পুরীকেই বেছেছিলেন। ‘বসন্ত রজনী’র আধারে কিরীটীর দ্বিতীয় ছবি করছেন তিনি। গল্পের সঙ্গে পুরীর সরাসরি যোগ রয়েছে। সেখানেই ঘটে ছবির ক্লাইম্যাক্স। তাই শ্যুটিং করতে ছবির টিম গিয়েছিল পুরী। কোনার্ক, রঘুরাজপুরের বিভিন্ন এলাকায় ছবির শ্যুটিং হয়েছে। কিরীটীর চরিত্রে ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত। তার স্ত্রীয়ের চরিত্রে অরুণিমা ঘোষ। আগের ছবিতেও অরুণিমা ছিলেন। ‘নীলাচলে কিরীটী’তে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে দেখা যাবে রহস্যজনক চরিত্রে। আগামী সপ্তাহ থেকে কলকাতায় হবে ছবির শ্যুটিং।