সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কোন সাজ লাগল চোখে

পর পর বিয়ের পিঁড়িতে চার নায়িকা। জৌলুসে, সাজে, স্টাইল কোশেন্টে কে কাকে টক্কর দিলেন? আনন্দ প্লাসের রিপোর্ট কার্ড

Wedding

Advertisement

দীপিকা পাড়ুকোন

দীপিকা পাড়ুকোন আর রণবীর সিংহর বিয়ে বোধহয় এ বছরের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা। এমনকি গুগল সার্চেও তাঁরাই এগিয়ে। দীপিকা যা পরেন, তাতেই সুন্দর। কিন্তু বিয়ের সাজ নিয়েই সবচেয়ে বেশি সমালোচিত হতে হল তাঁকে। মেহন্দি, বিয়ে, রিসেপশন প্রত্যেকটাতেই তিনি আলাদা লুক ট্রাই করেছেন। তবে সবচেয়ে মন ছুঁয়ে যায় মেহন্দির ঘরোয়া অনুষ্ঠানে তাঁর সাজ। সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়ের ডিজ়াইনে হালকা গোলাপি আর লালের মিশেলে তৈরি পোশাক, আলগা খোঁপার সঙ্গে সনাতনী গয়নায় দীপিকার রূপ যেন ঠিকরে পড়ছিল। বিয়ের দিন সব মেয়েই চান, সাজটা যেন রূপকথার মতো হয়। অথচ দীপিকার ওই দিনের লুক প্রমাণ করে দিল, অধিক গয়নায় সাজ নষ্ট! তাঁর স্বাভাবিক সৌন্দর্য যেন ঢাকা পড়ে গিয়েছিল। দক্ষিণী এবং পঞ্জাবি দু’মতের অনুষ্ঠানেই পোশাক-গয়নার বাড়বাড়ন্ত ছিল। তবে গালে টোল ফেলা হাসি দিয়ে দীপিকা যেন সবটা ম্যানেজ করে নিচ্ছিলেন। রিসেপশনের দিনেও দীপিকা যতটা নববধূ, তার চেয়ে বেশি যেন ডিজ়াইনারের মডেল। নায়িকার বেঙ্গালুরুর রিসেপশনের সাজ অনুষ্কা শর্মার দিল্লি রিসেপশনের মতোই। মুম্বইয়ের মিডিয়া রিসেপশনে আবু জানি ও সন্দীপ খোসলার পোশাকেও তিনি কপিবুক মডেল! তবে শেষ রিসেপশনে জুহের মুরাদের পোশাকে নায়িকার খানিক মুখরক্ষা হয়েছিল। সে দিন দীপিকা ছিলেন একেবারে রেড হট।

 

সোনম কপূর 

ফ্যাশনিস্তা হিসেবেই সকলে তাঁকে চেনেন। কিন্তু বিয়ের দিনে ফ্যাশন সেন্স নিয়ে ট্রোলড হতে হয়েছিল সোনম কপূরকে। অনুরাধা ভকিলের লাল লেহঙ্গার সঙ্গে একাধিক ভারী গয়না পরেছিলেন সোনম। ফ্যাশনিস্তার কাছ থেকে ভক্তরা এটা আশা করেননি। রিসেপশনের দিনে সোনম অনামিকা খন্নার লেহঙ্গা বেছেছিলেন। সে দিনের সাজ অবশ্য মোটামুটি উতরে গিয়েছিল। তবে সোনমের সেরা সাজ তাঁর সঙ্গীত অনুষ্ঠানের। আবু জানি ও সন্দীপ খোসলার সাদা লেহঙ্গায় ভারী স্নিগ্ধ দেখাচ্ছিল সোনমকে।

 

অনুষ্কা শর্মা

অনেক প্রতীক্ষার পরে বিয়ের ছবি দিয়েছিলেন অনুষ্কা শর্মা। সে ছবি ভক্তদের চোখ জু়ড়িয়ে দিয়েছিল। সব্যসাচীর হালকা গোলাপি লেহঙ্গার সঙ্গে মানানসই গয়নায় স্নিগ্ধ দেখাচ্ছিল অনুষ্কাকে। সম্প্রতি যত জন নায়িকা বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন, তাঁদের মধ্যে বিয়ের সাজে অনুষ্কাই সেরা। মেহন্দির সাজেও ভাল লেগেছিল তাঁকে। তবে রিসেপশনে হতাশ করেছিলেন নায়িকা। প্রত্যেক দিন একই ডিজ়াইনারকে রিপিট করাটাই হয়তো তাঁর ভুল হয়েছিল। দিল্লির রিসেপশনে তিনি লাল বেনারসি পরলেও গয়না এবং চুলের কায়দা একেবারেই ডিজ়াইনারের কপিবুক স্টাইলে। তাই অনুষ্কার নম্বর খানিক কাটতেই হচ্ছে। তাঁদের মতো ট্রেন্ডসেটাররা কেন ডিজ়াইনারকে অন্ধের মতো অনুসরণ করবেন?  

 

প্রিয়ঙ্কা চোপড়া

আন্তর্জাতিক মঞ্চ যে প্রিয়ঙ্কা চোপ়ড়াকে অনেক কিছু শিখিয়েছে, সেটা তাঁর বিয়ের সাজ দেখেই বেশ বোঝা যাচ্ছে। মেহন্দির জন্য আবু জানি ও সন্দীপ খোসলার সাতরঙা গাউন বেছেছিলেন প্রিয়ঙ্কা। পোশাকের ঔজ্জ্বল্য ছুঁয়ে গিয়েছিল তাঁকেও। ভারতীয় কনেদের মতো বিয়ের দিনের পোশাকের জন্য লাল রংটাই বেছেছিলেন নায়িকা। ভারী নেকপিস থাকলেও তা প্রিয়ঙ্কার সৌন্দর্যে বাধা হয়নি। খ্রিস্টান মতেও বিয়ে করেছিলেন প্রিয়ঙ্কা। তাঁর সে দিনের সাজও একেবারে রূপকথার মতো! র‌্যালফ লরেনের সাদা গাউন, যার ভেল ছিল ৭৫ ফুট লম্বা! হিরে, মুক্তো, ক্রিস্টালের বহুমূল্য রত্ন ছিল সেই গাউনে। এই সাজে প্রিয়ঙ্কা সত্যিই রাজকন্যা! প্রত্যেক দিনই আলাদা ডি‌জ়াইনারের পোশাক বেছেছিলেন নায়িকা। ফলে সাজেও বৈচিত্র ছিল। দিল্লির রিসেপশনে ফাল্গুনী শেন পিককের সাদার উপরে ভারী কাজ করা লেহঙ্গা পরেছিলেন প্রিয়ঙ্কা। নজর কেড়েছিল তাঁর নেকপিস। ব্রাইডাল সাজে প্রিয়ঙ্কা বেশি নম্বর পাবেন একটাই কারণে। নিজের সাজে তিনি অনন্যা। কাউকে অনুকরণ করতে যাননি নায়িকা। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন