• Plus-logo
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

শীত মানে সেক্সি হেয়ার

বলছেন স্টাইলিস্ট স্যান্ডি। পরামর্শ দিলেন মেকআপ আর্টিস্ট অনিরুদ্ধ চাকলাদার।

Hair Style
  • Plus-logo

Advertisement

নোট বাতিলের ধাক্কা এখনও সামলে ওঠা যায়নি। এটিএমে ভিড় আগের থেকে কিছুটা কমলেও মিলিয়ে যায়নি। নানান কাজের মধ্যেই ফিরে ফিরে আসছে টাকার চিন্তা আর নোট বাতিলের চর্চা।

নোট নিয়ে চর্চার মাঝেই চুপিসারে শহরে হাজির শীত। আর শীতের শহর মানেই পার্টি, পিকনিক, বিয়ে বাড়ি, আড্ডা। মন খালি বলে চলো যাই...

মন কেমনের উষ্ণতা যদি পার্টির সাজকে ছুঁয়ে যায় মন্দ কি!

শীত মানেই যেন ‘যেমন খুশি সাজো’। বছরভর যে সব স্টাইল করবেন ভেবেও প্যাচপ্যাচে গরমে আর ভরা বর্ষায় করে উঠতে পারেননি শীতে চোখ বুজে ট্রাই করুন।

স্টাইল বদলানোর সবচেয়ে ইম্পর্ট্যান্ট কম্পোনেন্ট হল চুল। স্রেফ একঢাল খোলা চুলে আপনি হয়ে উঠতে পারেন সেক্সি।

তবে চুল খোলা রেখে স্টাইল করার আগে দেখতে হবে তা যেন সিল্কি স্মুথ লুক দেয়। না হলে সাজের সবটাই ভেস্তে যাবে। চুল নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন।

এক ঢাল খোলা চুলের মতো শর্ট লেংথের হেয়ার কিন্তু ফ্যাশনে দারুণ ভাবে ফ্যাশনে ইন। ফলে লং লেংথ না হলেও সেটা নিয়ে খুঁতখুঁত করার কোনও দরকার নেই। চুলের লেংথকে এক্সট্রা হেয়ার দিয়ে বাড়ানোর চেষ্টা করবেন না। নকল খোপা বা চুল লাগানোর রীতি কিন্তু একেবারে আউটডেটে়ড। ফলে বিয়েবাড়িতে এথনিক লুক গভীর করতে নকল চুল নয়, ভরসা রাখুন নিজস্ব চুলে। সেটা কী করে গ্লসি করে তোলা যায় সে দিকে খেয়াল রাখুন।

খোপা করলে গোলাপ নয়। লাগান এই সিজনের কোনও ফুল।

আর খোপা মানেও কিন্তু খুব আটোসাঁটো করে নিট অ্যান্ড ক্লিন করে বাধা চুল নয়।

খোপায় থাকুক উষ্ণতার আমেজ। একটু লুজ খোঁপায় নিজেকে করে তুলুন আরও আকর্ষণীয় ও মোহময়ী।

মধ্যিখানে চুল আঁচড়ে খোপা করায় অভ্যস্ত হলে পার্টিতে নজর কাড়ুন কপালের ওপর চুল ফেলে রেখে। কপালের পড়ে থাকা চুলে অযত্নের ছাপ স্পষ্ট হোক। সেটাই তো আপনার ইউএসপি।

রাত পার্টিতে যদি ওয়েস্টার্ন আউটফিটে স্বচ্ছন্দ হন, তা হলে হেয়ার স্টাইলে থাকুক টেক্সচার। ফ্যাশনে ইনেস্ট থিং হেয়ার-টেক্সচার।

    সামনের দিকের চুলটা ভেল ক্রো দিয়ে আটকে নিন। নীচের দিকের অংশটা টং  বা মুজ দিয়ে টেক্সচার করতে পারেন। তবে খুব সিল্কি হেয়ার হলে  টং দিয়ে টেক্সচার করলেও থাকে না। সে ক্ষেত্রে পিছনের দিকের অল্প কিছু চুল নিয়ে বিনুনি করুন। পুরো চুল বিনুনি না করে, অল্প কিছু চুল দিয়ে বিনুনি করলে জিপসি লুক দেয়। ওয়েস্টার্ন ড্রেস বা ফ্লোয়ি লং গাউনের সঙ্গে দারুণ মানানসই। চুলে কালার করার সময় পাননি বলে আফশোসটা ঢেকে ফেলুন রেশমের রঙিন সুতো জড়িয়ে। ছোট বিনুনির মধ্যে রেশমের রঙিন সুতোয় নজর কাড়ুন নারী-পুরুষ সকলের। বেশ কালারফুল দেখতে লাগে।

 হর্সটেল বা পনি করলে পুরো চুলটাই যে পনি করে রাখতে হবে তার মানে নেই। পনির পিছনের দিকের কিছু চুল নিয়ে বিনুনি করে ফেলুন। হট প্যান্ট, মিনি স্কার্ট বা রিপড জিনস বা স্লিট গাউনে এই লুক তো আদর্শ। উইন্টার ফেস্টিভ্যালে এই হেয়ারস্টাইলই আপনাকে শীত উদযাপনের সাহস  দেবে।  

মেক আপ আর্টিস্ট অনিরুদ্ধ চাকলাদারের মতে এথনিক লুক হোক বা ওয়েস্টার্ন লুক ফিউশন হেয়ারস্টাইলের চল বেশি। ‘‘লম্বা চুল হলে চুল খোলা রেখে মাঝখান দিয়ে বিনুনি করে নিতে পারেন। যার পোশাকি নাম ওয়াটারফল হেয়ারস্টাইল। আবার টং দিয়ে টেক্সচার করে খোলা চুলে পার্টিতে নজর কাড়তে পারেন।’’

শীতে মনের রং যদি চুলে ছড়িয়ে দিতে চান তা হলে বারগেন্ডি, মোহগেনি কালার বেছে নিন। ভারতীয় স্কিন টোনের সঙ্গে এই দুটো কালার বেশি ভাল যায়। স্ট্রিকসের বদলে চুলে ওভারঅল কালার করার চল এখন বেশি। পরামর্শ অনিরুদ্ধ চাকলাদার-য়ের।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন