দেশভাগের প্রেক্ষাপটে কর্ণ জোহরের ব্যানারের ছবি। এক দশক আগেও বোধহয় এ রকম ছবি কর্ণ করছেন, ভাবাই যেত না। তবে দেশভাগের নেপথ্যে যে জমাটি প্রেমের গল্পও রয়েছে, সেটা ট্রেলারেই বোঝা গিয়েছে। ট্রেলার এবং দু’টি গান মুক্তি পাওয়ার পরে এই মুহূর্তে ‘কলঙ্ক’-এর জাঁকজমকপূর্ণ সেট নিয়েও আলোচনা কম নয়। 

ছবির আর্ট ডিরেক্টর অমৃতা মহল নকাই জানিয়েছেন, ছবিটি যেহেতু স্বাধীনতার আগের টাইমলাইনে বানানো, তাই সেটের তৈরি করা ঘরবাড়ির বাইরের দেওয়ালে সেই সময়কার বিজ্ঞাপনের পোস্টার থেকে শুরু করে জানালা-দরজায় পর্দার কাপড়ের ডিজ়াইন— সব পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে সাজানো হয়েছে। 

গল্পের প্রেক্ষাপট লাহৌরে। তাই বিরাট সেটের একাংশে লাহৌরের বিখ্যাত বাজার হিরা মন্ডি নির্মাণ করেছেন অমৃতা এবং তাঁর টিম। ১৯৪০-এর হিরা মন্ডি তৈরি করা মুখের কথা ছিল না। তবে অমৃতার কথায়, ‘‘স্ক্রিপ্টটাই এত খুঁটিয়ে লেখা যে, রেফারেন্স পেতে আমাদের অসুবিধে হয়নি। তবে এত বড় সেট এই প্রথম ডিজ়াইন করলাম আমি।’’  ২০১৬ সালের শেষ থেকে তাঁরা শুরু করে দিয়েছিলেন সেট বানানোর এই দীর্ঘ কাজ। 

সেটের কালার প্যালেটে লাল রঙের আধিক্য লক্ষ্য করবেন অনেকেই। প্রতিটা ফ্রেমেই কোনও না কোনও শেডের লাল ব্যবহার করা হয়েছে। আর সেটা নাকি পরিচালক অভিষেক বর্মণের বিশেষ নির্দেশেই করা হয়েছে। কারণ ‘কলঙ্ক’-এর মতো বোল্ড থিমের ছবির জন্য লালের মতো বোল্ড রঙের প্রয়োজন ছিল বলেই তিনি মনে করেছিলেন।