ভোটের আমি, ভোটের তুমি...
ভোট দিতে হাজির ছিল প্রায় গোটা বলিউড, অনুপস্থিতও ছিলেন জনা
kareena kapor

করিনা কপূর।

সোমবার ছিল মুম্বইয়ে ভোট। সকাল থেকেই সাধারণ মানুষের ভিড়ে নজর কেড়েছে ইন্ডাস্ট্রির গ্ল্যামারাস মুখেরা। বচ্চন পরিবার থেকে শুরু করে আমির-কিরণ, পরেশ রাওয়াল, শাবানা আজ়মি, রণবীর সিংহ থেকে রণবীর কপূর সকলেই আদর্শ নাগরিক হওয়ার দায়িত্ব পালন করেছেন। ইনস্টাগ্রামে ছোট-বড় সব মাপের তারকারাই নীল কালি মাখা আঙুলের ছবি পোস্ট করেছেন। 

আলাদা করে উল্লেখ করতে হয়, প্রিয়ঙ্কা চোপড়ার কথা। প্রায়শই তিনি বিদেশ থেকে মুম্বই উড়ে আসেন। এ দিন সকাল সকাল ভোটও দিয়েছেন তিনি। মায়ের সঙ্গে ভোট দেন অনুষ্কা শর্মাও। স্বামী গোল্ডি বহেলের সঙ্গে আসেন সোনালি বেন্দ্রে। কর্তা-গিন্নি পাপারাৎজ়িকে দুয়ো দিলেও, তৈমুরকে সঙ্গে করে ভোটকেন্দ্রে এসেছিলেন করিনা কপূর খান। তার পরে বোন করিশ্মা ও রিয়া কপূরের সঙ্গে লাঞ্চেও যান বেগম। গৌরী ও আব্রামকে নিয়ে ভোট দিতে এসেছিলেন শাহরুখ খান।

এই প্রজন্মে‌র মধ্যে রাজনৈতিক মতাদর্শ স্পষ্ট ভাবে জাহির করেন কঙ্গনা রানাউত। গরমে বেশির ভাগ সেলেব যখন সাদা টপ, জিন্‌স-কুর্তি পরেছেন, তখন মণিকর্ণিকা বেছে নিয়েছেন শাড়ি। ভোট দেওয়ার পরে সংবাদমাধ্যমের সামনে তাঁর স্বভাবোচিত কয়েকটি বাণীও দিয়েছেন নায়িকা।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

তারকারাও যখন ভোটের লাইনে আমজনতার মতো দাঁড়িয়ে পড়েন, ভক্তদের সঙ্গে সেলফি তোলার আবদার আসাই স্বাভাবিক। বাবার সঙ্গে ভোট দিতে এসে লাইনে দাঁড়িয়ে ফ্যানের সঙ্গে সেলফি তুলেছেন রণবীর সিংহ। তবে তাঁর পাশে দীপিকা পাড়ুকোনের অনুপস্থিতি উস্কে দিয়েছিল নানা জল্পনা। শোনা যেত, ডেনমার্কের পাসপোর্ট থাকায় দীপিকা এ দেশে ভোট দেন না। তবে এ দিন ভোট দিয়ে দীপিকা ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘‘আমি কে ও কোথা থেকে এসেছি, তা নিয়ে আমার সংশয় নেই। যাঁরা আমার নাগরিকত্ব নিয়ে সন্দিহান, তাঁরা সংশয় দূর করুন...’’

তবে যে তারকা সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎকার নিলেন, নিজের ছবিতে প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নমূলক প্রকল্পের স্লোগান তোলেন, কানাডার নাগরিকত্ব থাকায় ভোট দিতে পারেন না তিনি, অক্ষয়কুমার। ব্রিটিশ নাগরিকত্ব থাকায় সেই অধিকার থেকে বঞ্চিত আলিয়া ভট্ট ও ক্যাটরিনা কাইফও।

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনের ফল