দিন-ক্ষণ
আগামী ৪ ডিসেম্বর সোমবার বিয়ে করতে চলেছেন পাওলি। পাত্র ব্যবসায়ী অর্জুন দেব। কলকাতার তাজ বেঙ্গলে হবে বিয়ের অনুষ্ঠান। যেহেতু পাত্রপক্ষের নিবাস গুয়াহাটি, তাই সেখানে ১০ ডিসেম্বর বিয়ের রিসেপশন দেওয়া হবে। পাওলি যে বিয়ে করতে চলেছেন তার গুঞ্জন অনেক দিন ধরেই চলছিল। তবে নায়িকা নিজের মুখে কোনও কিছুই স্বীকার করতে চাইছিলেন না। এখনও পাওলি এ ব্যাপারে কিছু বলতে নারাজ। বিয়ে তাঁর কাছে ভীষণ ব্যক্তিগত একটি সিদ্ধান্ত। তাই গোটা বিষয়টা ব্যক্তিগত পর্যায়েই রাখতে চান। কিন্তু খবর তো ছড়াতেই থাকে। প্রথমে বিয়ের গোটা অনুষ্ঠানই গুয়াহাটিতে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরে সিদ্ধান্ত হয়, বিয়ে হবে কলকাতায় মেয়ের বাড়িতে। ৬ তারিখে পরিবার-সহ গুয়াহাটি যাবেন পাওলি-অর্জুন।
 
পাত্র পরিচয়
অর্জুন গুয়াহাটির ব্যবসায়ী। কিন্তু কলকাতার সঙ্গে পুরোমাত্রায় যোগাযোগ। পাত্রপক্ষের অনেক আত্মীয়স্বজনেরই বাস কলকাতায়। বালিগঞ্জে অর্জুনদের বাড়িও রয়েছে। বিয়ের পর পাওলি-অর্জুন সেখানেই থাকবেন বলে শোনা যাচ্ছে। তবে বিয়ের পর কিছু দিন গুয়াহাটিতেই দু’জনের থাকার কথা। পারিবারিক ব্যবসার পাশাপাশি অর্জুনের নিজস্ব হোটেলও রয়েছে। 
 

অর্জুনের সঙ্গে
বিয়ের খুঁটিনাটি
একেবারে বাঙালি মতে বিয়ে করছেন পাওলি। অর্জুন গুয়াহাটির বাসিন্দা হলেও তাঁরাও বাঙালি। সুতরাং বিয়েতে বাঙালি নিয়মকানুনই থাকছে। গায়ে হলুদ থেকে দধি মঙ্গল কিছুই বাদ যাবে না। পাওলির লেক গার্ডেন্সের ফ্ল্যাটেই বিয়ের সকালের অনুষ্ঠান হওয়ার কথা। তাজ বেঙ্গলে বসবে সন্ধের আসর। সিঁদুরদান-সাতপাক সবই সেখানে হবে। খাওয়াদাওয়াতেও থাকছে এলাহি বন্দোবস্ত। বিয়ের পোশাকেও বাঙালিয়ানাই বজায় থাকবে। লাল বেনারসিতে সাজবেন পাওলি। পরছেন তাঁর মায়ের ট্র্যাডিশনাল সোনার গয়না। বিয়ের জন্য তিনি কোনও ডিজাইনার আউটফিট পরছেন না। পাওলির মেকআপের দায়িত্বে অনিরুদ্ধ চাকলাদার। তিনি কনের লুক ডিজাইন করেছেন। গুয়াহাটির রিসেপশনেও পাওলি সনাতনী সাজেই থাকবেন। পাওলি অবশ্য নিজে বরাবর বলতেন, লাল বেনারসি পরে সনাতনী সাজে বিয়ে করবেন। 
বিয়েতে কাকে কাকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন পাওলি? শোনা যাচ্ছে, ইন্ডাস্ট্রিতে তাঁর ঘনিষ্ঠ সকলকেই আমন্ত্রণ জানাবেন। ইতিমধ্যে অনেকের কাছে ‘সেভ দ্য ডেট’ মেসেজ পৌঁছেও গিয়েছে। অর্জুনের ব্যবসায়ী পরিবৃত্তটিও কম বড় নয়। অতিথি তালিকায় রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। পাওলির এক ঘনিষ্ঠ জানালেন, নিজে গিয়েই দিদিকে আমন্ত্রণ জানাবেন নায়িকা। 
বিয়ের ই-আমন্ত্রণ
 
আলাপচারিতা
ইতালীয় কনসাল জেনারেলের এক পার্টিতে আলাপ হয় পাওলি আর অর্জুনের। তার পরেও একাধিক অনুষ্ঠানে দু’জনের দেখা হয়। প্রেম পর্বের সেই শুরু। প্রেমের বিষয়টিও পাওলি গোপন রাখতে চেয়েছিলেন। কিন্তু এ সব তো চাপা থাকে না। হবু বরকে তিনি অবশ্য ‘জোজো’ বলে ডাকেন। অভিনেত্রীকে বিয়ে করলেও অর্জুন কিন্তু মোটেই বাংলা ছবি দেখেন না। তাঁর পছন্দ হলিউ়ডের অ্যাকশন ফিল্ম। শুধু পাওলির ‘নাটকের মতো’ দেখেছেন। পাওলি আর অর্জুন দু’জনেই বে়ড়াতে পছন্দ করেন। একসঙ্গে অনেক জায়গায় গিয়েছেনও তাঁরা। কিছু দিন আগেই পাওলি সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন তাঁর জন্মদিন উপলক্ষে। তবে বিয়ের পর নবদম্পতি কোথায় মধুচন্দ্রিমায় যাবেন, তা নাকি এখনও ঠিক হয়নি।
 
কর্মবিরতি
না, বিয়ে করছেন বলে কাজ ছাড়ছেন এমনটা মোটেই নয়। পাওলি এর আগে বহুবারই বলেছেন, বিয়ে করলেও অভিনয় চালিয়ে যাবেন। অর্জুনেরও এ ব্যাপারে পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। তবে বিয়ের জন্য তিনি জানুয়ারি পর্যন্ত ছুটি নিয়েছেন বলে খবর। ফেব্রুয়ারি থেকে ফের কাজ শুরু করবেন। তাঁর আগামী ছবির শিডিউল অন্তত তেমন কথাই বলছে।