রাইমা সেন নিজেও জানেন, তিনি ‘ইমপালসিভ’। সাক্ষাৎকারের আগের রাতে ফিরেছেন মুম্বই থেকে। সেখানে বিনয় পাঠকের সঙ্গে ‘আলিয়া গায়েব হো গয়ি’র কাজ করলেন। একটি ওয়েব সিরিজ়ের কাজও শুরু করেছেন। মাঝের সময়টা নতুন ছবির প্রচারের জন্য রাখা। তাই বিমানবন্দর থেকে একই প্যাটার্নের চারটে কুর্তি কিনে ফেলেছেন তিনি! বললেন, ‘‘যত রং ছিল, সব ক’টা তুলে নিয়েছি!’’ আনন্দ প্লাসের সাক্ষাৎকারের জন্য বেছে নিলেন তার মধ্য থেকে গোলাপি রঙেরটি। 

‘তারিখ’-এ ইরার চরিত্র করছেন তিনি। শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় তাঁর স্বামীর চরিত্রে। ঋত্বিক চক্রবর্তী বেস্ট ফ্রেন্ড। পরিচালক চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন? ‘‘চূর্ণী ইজ় মাই সিক্রেট কিপার। আমরা প্রচুর গসিপ করি। আমার অনেক গোপন কথা ও জানে। এবং সেগুলো কেজিকেও (কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়) বলে না,’’ বলছিলেন তিনি। 

রাইমাকে যাঁরা চেনেন, তাঁরা সকলেই জানেন তিনি ফেসবুক-ইনস্টাগ্রামে নিজেকে ব্যস্ত রাখেন। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার খারাপ দিকও তিনি জানেন। ‘‘সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যক্তিগত বলে কিছু থাকে না। ইনস্টাগ্রামে ছবি দিলে তার থেকে কিছু টাকা আসে। সেই কারণেই আছি। নেশা তো বটেই।’’ কাকে সবচেয়ে বেশি স্টক করেন ইনস্টাগ্রামে? সটান উত্তর, ‘‘নো ওয়ান! নিজেকেই স্টক করার সময় নেই।’’

ফেসবুকে শেষ কোন ‘মেমরি’ দেখে থমকে গিয়েছিলেন? রাইমার উত্তর, ‘‘হয়তো কারও কোনও কোট শেয়ার করেছিলাম পাঁচ বছর আগে। তা দেখে মনে হয়, কতটা বদলে গিয়েছি! কবে কার সঙ্গে বন্ধুত্ব হয়েছিল, সেটাও তো দেখা যায় ফেসবুকে। তখন মনে হয়, এদের সঙ্গে অনেক দিন কথা হয় না!’’

বোন রিয়া সেনও এখন কলকাতায়। কোথাও ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করছেন নাকি দু’জনে? ‘‘এখন একদমই সময় নেই। আমার জুন পর্যন্ত শুট রয়েছে। অতুল কুলকার্নির সঙ্গে একটা নতুন ছবির কথা হয়েছে। সেটার কাজও শুরু হবে। তবে রিয়া আমাকে ওর ওয়েব সিরিজ়ের শুটিং দেখতে যাওয়ার জন্য বলেছে।’’ 

মা মুনমুন সেনের সঙ্গে প্রচারে যাবেন দুই বোন। বললেন, ‘‘মা এখন আসানসোলে। ২০ তারিখের পরে আমরা যাব মায়ের সঙ্গে। আগে ভোট ব্যাপারটা নিয়ে মাথাই ঘামাতাম না। তবে শেষ পাঁচ বছর মা এম পি হওয়ার পর থেকে ব্যাপারটা ভাবাচ্ছে।’’ কী ভাবে? ‘‘আমাদের অনেক বেশি দায়িত্ববান হতে হয় এখন।’’ সহজ উত্তর নায়িকার। তা হলে যে পার্টি করা, ওয়াইল্ড রাইমাকে লোকে দেখে অভ্যস্ত, তিনি কি নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছেন? ‘‘গুটিয়ে কিছুই নিইনি। তবে একটু কমিয়ে দিয়েছি। বয়সও তো হচ্ছে,’’ ফের মুচকি হাসলেন। জানালেন, মাকে নিয়েও চিন্তায় তাঁরা, ‘‘বয়সও তো হচ্ছে। তাই বাবা আর আমি একটু চিন্তিত।’’ ভোটের প্রচারের দিকে রাইমা নজর রাখছেন। মিমি ও নুসরতের ভোট সংক্রান্ত কথাবার্তা শুনছেন টিভিতে। ‘‘খুব ভাল কথা বলছে ওরা। আমার তো মনে হয়, দু’জনেই জিতবে!’’ বললেন তিনি।  

রাইমা সেনকে যে প্রশ্নটা না করলে সাক্ষাৎকার অসম্পূর্ণ থাকে, সেটল কবে করছেন? ‘‘শুধু আপনারা নয়। এই প্রশ্নটা আমাকে কে কে মেননও জিজ্ঞেস করেছে! ‘হনিমুন ট্রাভেলস প্রাইভেট লিমিটেড’-এর সময় থেকে জানতে চাইছে, আমি কবে বিয়ে করছি! শেষ বার দেখা হওয়ায় বলল, ‘দশ বছর হয়ে গেল, এখনও বিয়ে করলে না!’ তবে আমি এখনও অপেক্ষা করছি, প্রিন্স চার্মিংয়ের জন্য!’’ জবাব রাইমার।

অন্তরা মজুম