• নবনীতা দত্ত
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সাজ পরিবারের অতিথি শিল্পীরা

মেকআপে বাধ্যতামূলক না হলেও যাদের উপস্থিতি সৌন্দর্য বাড়াতে সাহায্য করে, রইল সেই সাজ-সঙ্গীদের হদিশ

image
মডেল: রিয়া; মেকআপ: উজ্জ্বল দত্ত; ছবি: অমিত দাস; পোশাক: অ্যান্ড, ফোরাম কোর্টইয়ার্ড; ব্যাগ: গ্লোবাল দেসি, ফোরাম কোর্টইয়ার্ড

বাড়ির অতিথিদের মধ্যে কেউ আত্মীয়, কেউ বন্ধু, কেউ বা আবার প্রতিবেশী। আর এদের সমাগমেই বাড়ির চেহারা পাল্টে যায়। ফাঁকা চেয়ার ভরে ওঠে, হাসিঠাট্টায়, গল্প-কথায় মুখর হয়ে ওঠে গোমড়া ঘরগুলো। সারা বাড়ি যেন ঝলমল করে! ঠিক তেমনই সাজ-পরিবারেও এমন অনেক অতিথি আছে, যাদের স্বাগত জানাতে পারেন। নিত্যদিন হয়তো তাদের দরকার পড়ে না, কিন্তু উৎসবে-অনুষ্ঠানে এই বিশেষ অতিথিরা আপনার সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেবে তিন-চার গুণ...

 

লুমিনাইজ়ার: ত্বক উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত দেখাতে এর জুড়ি মেলা ভার। তবে লুমিনাইজ়ার কোথায় কী ভাবে ব্যবহার করবেন, সেটা আগে জানতে হবে। সারা মুখে লুমিনাইজ়ার মেখে নিলে কিন্তু ভীষণ চকচকে ও অদ্ভুত দেখতে লাগবে। মুখের ত্বকের যেখানে আলো প্রতিফলিত হয়, সে সব জায়গায় লুমিনাইজ়ার লাগালে অনেক সুন্দর দেখায়। চিকবোন ও ভুরুর হা়ড়ে লুমিনাইজ়ার লাগানো যায়। এ ছাড়াও নাকের ব্রিজে ও ঠোঁটের উপর কিউপি়ড বো-তে লুমিনাইজ়ার লাগাতে পারেন। তবে তা যেন বেশি পরিমাণে না হয়। আগে ব্যবহার করে দেখে নিন আপনার ত্বকের জন্য লুমিনাইজ়ারের কতটা পরিমাণ সঠিক। পাউডার, জেল, ক্রিম, লিকুইড আকারে বাজারে পেয়ে যাবেন। তৈলাক্ত, শুষ্ক, স্বাভাবিক— নিজের ত্বকের ধরন অনুযায়ী বাছতে হবে লুমিনাইজ়ার।

সেটিং স্প্রে বা পাউডার: মেকআপ যাতে দীর্ঘস্থায়ী হয়, তার জন্য ব্যবহার করতে পারেন সেটিং স্প্রে বা পাউডার। মেকআপ করার ১০ মিনিট পরে মুখের একটু দূর থেকে এটা স্প্রে করবেন। তবে খেয়াল রাখবেন এই স্প্রে যেন চোখে না চলে যায়। ইংরেজি অক্ষর ‘এক্স’ ও ‘টি’ আকারেই এটা মুখে স্প্রে করার নিয়ম।

আই প্রাইমার: চোখের মেকআপের আগে দরকার আই প্রাইমারের। প্রাইমার লাগিয়ে নিলে আইশ্যাডো বা লিকুইড আইলাইনার, যা-ই লাগানো হোক না কেন, তা ভাল করে বসে যায়। চোখের চারপাশে ছড়িয়ে যায় না। চোখের নীচেও অল্প করে প্রাইমার লাগিয়ে নিতে পারেন। অনেক সময়েই চোখের কাজল গড়িয়ে আরও নীচে চলে আসে। সে ক্ষেত্রে প্রাইমার ব্যবহার করলে চোখের সাজ দীর্ঘস্থায়ী হবে।

আই ব্রো জেল: যতই ভুরু ব্রাশ করে বেরোন না কেন, কিছুক্ষণের মধ্যেই তা অবিন্যস্ত হয়ে যায়। অনেকটা চুলের মতোই অবাধ্য সে। তাই আই ব্রো জেল ব্যবহার করতে পারেন। এই জেল ভুরুর বিন্যাস ধরে রাখে অনেকক্ষণ। ভুরু পাতলা হলে টিন্টেড আই ব্রো জেল লাগাতে পারেন। তা হলে বেশ ঘন দেখাবে।

লিপ প্রাইমার: মুখের বা চোখের প্রাইমারের মতোই এর কাজও মেকআপের ভিত তৈরি করা। ঠোঁটে প্রাইমার লাগিয়ে, পরে লিপ লাইন করলে লিপস্টিক ঠোঁটের বাইরে বেরিয়ে যাবে না। বরং এই লিপ মেকআপ দীর্ঘস্থায়ী হয়।

লিপ প্লাম্পার: ‘মিরর মিরর’ ছবির জুলিয়া রবার্টসের সৌন্দর্য চিকিৎসার দৃশ্য মনে পড়ে? পতঙ্গের কামড়ে ঠোঁট ভরাট করে নিতে পারলে তো কথাই নেই। না হলে ব্যবহার করতে পারেন লিপ প্লাম্পার বাম। এই বামে দারচিনি, লবঙ্গ ও মেন্থল জাতীয় উপাদান ব্যবহার করা হয়। ফলে ঠোঁটে হালকা ইরিটেশন তৈরি হয়। ঠোঁট ফুলে বেশ ভরাট দেখায়।

আইল্যাশ: সাধারণত মাসকারা দিয়েই চোখের পলক ভরাট করার কাজ চলে যায়। কিন্তু অনুষ্ঠানে-উৎসবে চোখ আকর্ষক বানাতে আইল্যাশ ব্যবহার করাই যায়। 

হাই ডেফিনেশন পাউডার: ত্বকের সব সমস্যা ঢেকে দিতে এই একটি পাউডারই যথেষ্ট। দাগছোপ, বলিরেখা ঢেকে ত্বক উজ্জ্বল ও মসৃণ করে এই এইচ ডি পাউডার। ক্যামেরার সামনে, বেশি আলোয় অনেকক্ষণ থাকলে এই পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। 

জেল লাইনার: চোখে জেল লাইনার এখন ভীষণ ভাবে ইন। এই লাইনারে চোখ উজ্জ্বলও দেখায়। তাই নীল, সবুজ, মেরুন বা সোনালি রঙের জেল লাইনার বেছে নিতে পারেন উৎসবে-অনু্ষ্ঠানে।

টুথ হোয়াইটনার: যদিও এটি মেকআপের জন্য ব্যবহার করা হয় না। কিন্তু হাসলেই তো বেরিয়ে পড়বে দন্তকুল। তাই দাঁতের সাজও জরুরি। সুন্দর সাজে হঠাৎ হলদে ছোপওয়ালা দাঁত বেরিয়ে পড়লে কেমন দেখাবে, ভাবুন তো! টুথ হোয়াইটনার দাঁতের উপরের ছোপ তুলে দাঁতকে পরিষ্কার ও সাদা করতে সাহায্য করে। বিশেষ দিনে সাজপাঠ শুরুর আগেই দাঁতের পালিশ সেরে নিন।

সাজ সম্পূর্ণ করতে সাজের ঘরের এই অতিথি শিল্পীরা কিন্তু দারুণ পটু। তাই ইচ্ছে হলে সঙ্গে রাখতেই পারেন এই ধরনের মেকআপ সামগ্রী...

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন