সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

উৎসবের মিষ্টিমুখ

পুজোর ভূরিভোজের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গি ভাবে জড়িয়ে রয়েছে মিষ্টির হরেক পদ। আর বাড়িতে মিষ্টি বানানোর চলটাও আজকের নয়। দুর্গাপুজোর সময়, পুজো শেষে বিজয়ায় অথবা লক্ষ্মীপুজোয়... পাতে থাকে নোনতা আর মিষ্টি। তাই কিছু ভিন্ন স্বাদের মিষ্টির খোঁজ দিলেন গীতা দেবনাথ

Sandesh
গাজরের সন্দেশ

গাজরের সন্দেশ

 

উপকরণ: গাজর ৫০০ গ্রাম, খোয়া ক্ষীর ২০০ গ্রাম, ঘি ১০০ গ্রাম, কাজুবাদাম ৫০ গ্রাম, আমন্ড ১০-১২টি, কনডেন্সড মিল্ক ৪ টেব্‌ল চামচ, গুঁড়ো চিনি ১০০ গ্রাম, সাদা তিল ২ চা চামচ, দারচিনি ও ছোট এলাচ গুঁড়ো ১ চা চামচ।

প্রণালী: গাজর গ্রেট করে মিক্সিতে বেটে নিন। খেয়াল রাখুন, যেন গাজর মিহি করে বাটা না হয়ে যায়। কড়াইয়ে ঘি গরম করে কাজুবাদাম আর আমন্ড হালকা করে ভেজে তুলে নিন। ওই কড়াইতেই আবার ঘি দিয়ে গাজর দিন। গাজর ভাজা ভাজা হয়ে এলে খোয়া ক্ষীর আর কনডেন্সড মিল্ক দিয়ে নাড়তে থাকুন। এর পর কাজুবাদাম-আমন্ড আর দারচিনি-এলাচ গুঁড়ো ছড়িয়ে ভাল করে নেড়েচেড়ে নামিয়ে নিন। ঘি মাখানো প্লেটে সন্দেশের মিশ্রণ ভাল করে ছড়িয়ে আধ ঘণ্টা ফ্রিজে রাখুন। ঘিয়ে সাদা তিল হালকা করে ভেজে সরিয়ে রাখুন। এ বার উপর থেকে ঘিয়ে ভাজা তিল ছড়িয়ে চৌকো চৌকো করে কেটে নিন। পরিবেশন করুন গাজরের সন্দেশ।

 

লাউয়ের পায়েস

উপকরণ: ছোট লাউ ১টি, চিনি ২০০ গ্রাম, দুধ ২ লিটার, খোয়া ক্ষীর ১০০ গ্রাম, কিশমিশ-কাজুবাদাম-আমন্ড-পেস্তা বাদাম-আখরোট ১০০ গ্রাম, গুঁড়ো দুধ
১০ গ্রাম, এলাচ ৬-৮টা, ঘি ২ টেব্‌ল চামচ।

প্রণালী: লাউ ছোট ছোট করে কুচিয়ে গরম জলে ভাপিয়ে নিন। লাউয়ের টুকরো জল ঝরিয়ে রাখুন। কড়াইয়ে ঘি গরম করে কাজু, আমন্ড, পেস্তা আর আখরোট ভেজে তুলে নিন। এ বার একটি বড় পাত্রে দুধ ফুটতে দিন। দুধ ফুটে ঘন হয়ে এলে ভাপানো লাউয়ের টুকরো আর চিনি দিয়ে ১০ মিনিট ফোটান। এ বার একে একে খোয়া ক্ষীর, কিশমিশ, ঘিয়ে ভাজা নানা রকম বাদাম, গুঁড়ো দুধ আর এলাচ গুঁড়ো দিয়ে দিন। পায়েস ঘন হয়ে এলে উপর থেকে ঘি ছড়িয়ে নামিয়ে নিন। পরিবেশন করুন লাউয়ের পায়েস।

 

 

নারকেলের প্যাটিস

উপকরণ: নারকেল ১টি, খোয়া ক্ষীর ১০০ গ্রাম, চিনি ২০০ গ্রাম, কাজুবাদাম ২৫ গ্রাম, গুঁড়ো দুধ ১০ গ্রাম, ছোট এলাচ ১০-১২টি, ময়দা ৫০০ গ্রাম, কর্নফ্লাওয়ার ২০০ গ্রাম, বেকিং পাউডার ৪ চা চামচ, নুন এক চিমটে, তেল ভাজার জন্য।

প্রণালী: একটি পাত্রে ময়দা, কর্নফ্লাওয়ার, বেকিং পাউডার, সাদা তেল, নুন ও চিনি মিশিয়ে নিন। এ বার দরকার মতো জল দিয়ে মণ্ড তৈরি করুন। নারকেল কোরা, কাজু, খোয়া ক্ষীর, চিনি একসঙ্গে মেখে আঁচে বসিয়ে পাক দিতে থাকুন। পাক তৈরি হয়ে এলে গুঁড়ো দুধ আর এলাচ গুঁড়ো দিয়ে ভাল করে নে়ড়েচেড়ে নামিয়ে নিন। ময়দার মণ্ড থেকে ছোট ছোট লেচি কেটে গোল করে বেলে নিন। তার ভিতরে নারকেলের পুর ভরে চৌকো করে মুড়ে নিন। এ বার প্যাটিস লালচে হওয়া পর্যন্ত ভেজে নিন। উপর থেকে ক্ষীর ছড়িয়ে পরিবেশন করুন নারকেলের প্যাটিস।

 

খোয়া লাচ্চা পরোটা

উপকরণ: ময়দা ৫০০ গ্রাম, খোয়া ক্ষীর ২০০ গ্রাম, চিনি ২৫০ গ্রাম, স্বাদ মতো নুন, সাদা তেল ৩ টেব্‌ল চামচ, ঘি ১ কাপ, সুজি ৪ টেব্‌ল চামচ, দুধ আধ কাপ।

প্রণালী: ময়দা, নুন, অল্প চিনি আর সাদা তেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে ময়দা মেখে মণ্ড তৈরি করে নিন। একটি ছোট বাটিতে গরম দুধ, ঘিয়ে ভাজা সুজি, খোয়া ক্ষীর, চিনি মিশিয়ে আঠালো মিশ্রণ তৈরি করে নিন। ময়দার মণ্ড থেকে লেচি কেটে বেলে নিন। তার উপরে ঘি বুলিয়ে ক্ষীরের মিশ্রণ ছড়িয়ে দিন। এ বার ছুরি দিয়ে মাঝ বরাবর কেটে চোঙের আকারে মুড়ে নিন। সেটি আবার বেলে নিন। ঘিয়ে সেগুলি ভেজে নিলেই তৈরি খোয়া লাচ্চা পরোটা।

ছবি: শুভেন্দু চাকী

 

আপনি কি নিজের অভিনব রান্নার রেসিপি পত্রিকায় প্রকাশ করতে চান? তবে সেই রান্নার ছবি তুলে নাম, ঠিকানা ও ফোন নাম্বার-সহ মেল করুন এই মেল আইডিতে patrika@abp.in

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন