পাঠ্যবিষয় হিসেবে ছাত্রছাত্রীদের কাছে স্ট্যাটিসটিক্স জিনিসটা বেশ পরিষ্কার নয়। ফিজ়িক্স বা কেমিস্ট্রি নিয়ে পড়লে কোন দিকে গবেষণা করা যায় বা কী ধরনের চাকরি পাওয়া যায়, সেই বিষয়ে কিছুটা হলেও ধারণা অনেকেরই থাকে। কিন্তু স্ট্যাটিসটিক্সের ক্ষেত্রে? এটা একটা ইন্টারডিসিপ্লিনারি বিষয় বলে আজ ইকনমিক্স থেকে বায়োলজিক্যাল সায়েন্স, বিভিন্ন ক্ষেত্রেই স্ট্যাটিসটিক্সের জ্ঞান প্রয়োগ করা হচ্ছে। ফলে তুমি এই বিষয় পড়তে এলেও ভবিষ্যতে বিজ্ঞানের কোন বিষয় নিয়ে গবেষণা করবে, তা কখনওই আগে থেকে বলতে পারবে না। 

 

স্নাতক স্তরে পড়াশোনা

আমাদের রাজ্যে বহু প্রতিষ্ঠানেই স্ট্যাটিসটিক্সে অনার্স পড়ানো হয়। যেমন, 

 ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিসটিক্যাল ইনস্টিটিউট (আইএসআই)

www.isical.ac.in

রামকৃষ্ণ মিশন রেসিডেনশিয়াল কলেজ নরেন্দ্রপুর (অটোনমাস)

www.rkmcnarendrapur.org

সেন্ট জ়েভিয়ার্স কলেজ (অটোনমাস)

www.sxccal.edu

প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়

www.presiuniv.ac.in/web/statistics.php

আশুতোষ কলেজ

www.asutoshcollege.in

মৌলানা আজাদ কলেজ 

www.maulanaazadcollege.in

 লেডি ব্রেবোর্ন কলেজ

www.ladybrabourne.com

বেথুন কলেজ

www.bethunecollege.ac.in

বাসন্তী দেবী কলেজ

www.basantidevicollege.edu.in

সুরেন্দ্রনাথ কলেজ

www.surendranathcollege.org

 ঠাকুরপুকুর বিবেকানন্দ কলেজ

www.vckolkata63.org

বিধাননগর কলেজ 

www.bidhannagarcollege.org

 আচার্য প্রফুল্লচন্দ্র কলেজ, 

নিউ ব্যারাকপুর

http://apccollege.ac.in ইত্যাদি।

আইএসআই-তে পড়াশোনা

যদি আইএসআই-তে বি স্ট্যাট পড়ার ইচ্ছে থাকে, তা হলে তার প্রস্তুতি নিতে হবে মোটামুটি একাদশ শ্রেণি থেকেই। এর জন্য দ্বাদশ শ্রেণির অঙ্ক খুব ভাল করে জানতে হবে। তবে শুধু পড়লেই হবে না। প্রতি সপ্তাহে অন্তত কয়েক ঘণ্টা করে বিভিন্ন ধরনের অঙ্ক প্র্যাকটিস করতে হবে। কী অঙ্ক প্র্যাকটিস করবে সেই সংক্রান্ত কিছু বই বাজারে পাওয়া যায়। এদের দু’একটা হল— টেস্ট অব ম্যাথমেটিক্স অ্যাট দ্য টেন প্লাস টু লেভেল (আইএসআই প্রকাশনা), ৫০১ ডিফিকাল্ট প্রবলেমস ইন ম্যাথমেটিক্স (আর কে রায়চৌধুরী, বি এম পাবলিশার্স), প্রবলেম সলভিং স্ট্র্যাটেজিস (আর্থার এঙ্গেল) ইত্যাদি।

এই ধরনের পরীক্ষায় অঙ্ক মিলিয়েমিশিয়ে দেওয়া হয়। কোনও একটা অঙ্ক সলভ করতে হয়তো ইনইকুয়ালিটির সঙ্গে ট্রিগোনোমেট্রির জ্ঞানও প্রয়োগ করতে হতে পারে। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় সাধারণত এই ধরনের অঙ্ক আসে না। তাই আইএসআই-এর পরীক্ষার আগে ভিন্ন ধরনের অঙ্ক প্র্যাকটিস করা উচিত।  

পাস-এ বিষয় 

পাস-এ প্রথাগত ভাবেই অঙ্ক নিতে হয়। সঙ্গে কম্পিউটার সায়েন্স বা ইকনমিক্স নেওয়া যায়। 

উচ্চশিক্ষা

ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিসটিকাল ইনস্টিটিউট-এ এম স্ট্যাট থেকে শুরু করে আরও হায়ার স্টাডিজ় করা যায়। এম স্ট্যাট-এ ভর্তি হতে প্রবেশিকা পরীক্ষা দিতে হয় ছেলেমেয়েদের। এখানে এম স্ট্যাটের দ্বিতীয় বর্ষে প্রোবাবিলিটি, থিয়োরিটিক্যাল স্ট্যাটিসটিক্স এবং অ্যাপ্লায়েড স্ট্যাটিসটিক্সের মধ্যে কোনও একটা বিষয় বেছে নিতে হয় স্পেশালাইজ়েশনের জন্য। যারা অ্যাপ্লায়েড স্ট্যাটিসটিক্সে স্পেশালাইজ়েশন করে, তাদের আবার চারটি শাখার মধ্যে একটি শাখা বেছে নিতে হয়। শাখাগুলি হল— অ্যাকচুয়ারিয়াল স্ট্যাটিসটিক্স, বায়োস্ট্যাটিসটিক্স, কম্পিউটেশনাল স্ট্যাটিসটিক্স এবং ফিনান্স। 

কলকাতা www.caluniv.ac.in, কল্যাণী www.klyuniv.ac.in, প্রেসিডেন্সি, বর্ধমান www.buruniv.ac.in, ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট www.wbsubregistration.org-এর মতো রাজ্যের অনেক  বিশ্ববিদ্যালয়েই এই বিষয়ে উচ্চশিক্ষা করা যায়।  

রাজ্যের বাইরে

আইআইটি কানপুরে ‘জ্যাম’ পরীক্ষা দিয়ে যাওয়া যায় এম এসসি পড়া যায়। www.iitk.ac.in/math 

ইন্ডাসট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন্‌স রিসার্চ-এর ওপর এম এসসি-পিএইচ ডি ডুয়াল ডিগ্রি কোর্স আছে আইআইটি বম্বেতে। এ ছাড়াও এখানে অ্যাপ্লায়েড স্ট্যাটিসটিক্স অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স-এ দু’বছরের এম এসসি পড়ানো হয়। www.iitb.ac.in। স্ট্যাটিসটিক্স এবং ইনফরমেটিক্স আরও অনেক আইআইটি-তেই পড়ানো হয়। 

দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় http://statistics.du.ac.in, বেনারাস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় www.bhu.ac.in/science/statistics, সাবিত্রীবাই ফুলে পুণে বিশ্ববিদ্যালয় www.unipune.ac.in, লখনউ বিশ্ববিদ্যালয় www.lkouniv.ac.in (এখানে স্ট্যাটিসটিক্স-এ স্নাতকোত্তর ছাড়াও বায়োস্ট্যাটিসটিক্সে স্নাতকোত্তর পড়া যায়), হায়দরাবাদ বিশ্ববিদ্যালয় www.uohyd.ac.in (এখানে স্ট্যাটিসটিক্স অপারেশনস রিসার্চ-এ মাস্টার্স পড়ানো হয়), মুম্বই বিশ্ববিদ্যালয় http://mu.ac.in, পুদুচেরি বিশ্ববিদ্যালয় www.pondiuni.edu.in (এখানে  স্ট্যাটিসটিক্স ছাড়াও কোয়ান্টিটেটিভ ফিনান্সে এম এসসি পড়া যায়)-এর মতো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানেই স্ট্যাটিসটিক্স বা আনুষঙ্গিক বিষয় নিয়ে উচ্চশিক্ষা করা যায়।

বায়োস্ট্যাটিসটিক্স নিয়ে পড়া যায় ক্রিশ্চান মেডিক্যাল কলেজ, ভেলোর-এ www.cmch-vellore.edu। 

চেন্নাই ম্যাথামেটিকাল ইনস্টিটিউটে www.cmi.ac.in স্নাতকোত্তর কোর্সে পড়ানো হয় অ্যাপ্লিকেশন্স অব ম্যাথমেটিক্স-এ। স্ট্যাটিসটিক্স-এর ছেলেমেয়েরা এখানে আবেদন করতে পারে। 

ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর পপুলেশন সায়েন্সেস-এ http://iipsindia.org গেলে মাস্টার্স পড়তে পারবে পপুলেশন স্টাডিজ়, বায়োস্ট্যাটিসটিক্স অ্যান্ড ডেমোগ্রাফি-র মতো বিষয়ে।

বিভিন্ন ধরনের গবেষণা হয় সি আর রাও অ্যাডভান্সড ইনস্টিটিউট অব ম্যাথমেটিক্স, স্ট্যাটিসটিক্স অ্যান্ড কম্পিউটার সায়েন্স-এ। www.crraoaimscs.org

বিদেশে পড়াশোনা

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেনের মতো দেশেও উচ্চশিক্ষা করতে যাচ্ছে ছেলেমেয়েরা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি, ইয়েল ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফর্নিয়া, স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি, কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব শিকাগো, ইউনিভার্সিটি অব উইসকনসিন, ইউনিভার্সিটি অব মিশিগান, ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ক্যারোলাইনা ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

কাজের সুযোগ

কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরির পাশাপাশি দেশে বিভিন্ন গবেষণাকেন্দ্রে এখন স্ট্যাটিসটিক্সের ওপর ভিত্তি করে প্রচুর কাজ হচ্ছে। বেসরকারি ক্ষেত্রে অ্যানালিটিক্স বিভাগে যোগ দিচ্ছে স্ট্যাটিসটিক্স পড়ে। যারা সরকারি চাকরি করতে চায় তারা দিতে পারে ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিসটিক্যাল সার্ভিস-এর পরীক্ষা। রাজ্য সরকারের ব্যুরো অব স্ট্যাটিসটিক্স অ্যান্ড প্রোগ্রাম ইমপ্লিমেন্টেশন-এও চাকরি মেলে। রিজ়ার্ভ ব্যাঙ্কের ডিপার্টমেন্ট অব স্ট্যাটিসটিক্সে চাকরি পাওয়া যায়।

প্রয়োজনীয় কথা

স্ট্যাটিসটিক্স পড়ার ক্ষেত্রে শুধু 

অঙ্কে ভাল হলেই চলে না। অঙ্কে প্রধানত লোকে ডিডাকটিভ রিজ়নিং ব্যবহার করে। অন্য দিকে, স্ট্যাটিসটিক্সে ব্যবহার করা হয় ইনডাকটিভ রিজ়নিং। 

স্ট্যাটিসটিক্যাল অ্যানালিসিস কখনওই পুরো জনসংখ্যার উপর 

করা হয় না। বরং জনসংখ্যা থেকে ঠিক ভাবে বেছে নেওয়া একটি ক্ষুদ্রতর অংশের উপরে করা হয়। একেই স্ট্যাটিসটিক্সের পরিভাষায় আমরা স্যাম্পল বলে থাকি। এই স্যাম্পল ডেটা উপযুক্ত ভাবে সংগ্রহ করা, তার বিশ্লেষণ ও শেষ সিদ্ধান্তকে প্রোবাবিলিস্টিক্যালি লোকের 

সামনে তুলে ধরা— এটাই হল 

আসল কাজ। শেষ সিদ্ধান্তকে জোরালো ভাবে সমর্থন করলেও কখনওই একেবারে অভ্রান্ত বলা যায় না। এই ধরনের কাজের প্রতি আগ্রহ থাকলে, তবে স্ট্যাটিসটিক্স পড়তে আসা উচিত।