সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিষয় যখন ফরেস্ট্রি

forestry

Advertisement

প্রশ্ন: এগ্রিকালচার নিয়ে স্নাতক স্তরে পড়ছি। ভবিষ্যতে ফরেস্ট্রি নিয়ে পড়তে চাই। রাজ্যের বাইরে কোথায় পড়া যায়? গবেষণা কোথায় করা যায়? পরে অন্য কোনও দিকে যাওয়া যায় কি?  

নরেন্দ্র সাহা, পাইকপাড়া

 

উত্তরবঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেস্ট্রি বিভাগের শিক্ষক অমরেন্দ্র নাথ দে-র মতে, ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব এগ্রিকালচারাল রিসার্চ (আইসিএআর) বিশেষ পরিষদ গঠন করে বিভিন্ন বিষয়ের স্নাতক, স্নাতকোত্তর এবং পিএইচ ডি-র ক্ষেত্রে সিলেবাস তৈরি করে। ফরেস্ট্রি সেই সব বিষয়ের অন্যতম। যে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (সরকারি বা বেসরকারি) সেই সিলেবাস অনুযায়ী কোর্স করায়, তাদের কোর্সগুলির আইসিএআর-এর স্বীকৃতি থাকে। অনেক সময় কোনও ছাত্র হয়তো এমন কোনও প্রতিষ্ঠান থেকে ফরেস্ট্রি নিয়ে স্নাতক কোর্স পড়ল যেটা আইসিএআর স্বীকৃত নয়। সে ক্ষেত্রে পরবর্তী কালে সে কিন্তু দেশের কোনও প্রতিষ্ঠানেই স্নাতকোত্তর পড়ার বা উচ্চশিক্ষার সুযোগ পাবে না। ফলে শিক্ষার্থীকে স্নাতক বা স্নাতকোত্তর স্তরে কোর্সটি পড়তে যাওয়ার আগে দেখে নিতে হবে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ফরেস্ট্রি কোর্সটি আইসিএআর স্বীকৃত কি না। উত্তরবঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে যারা স্নাতক স্তরে এগ্রিকালচার বা হর্টিকালচার পড়ছে, তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর স্তরে ফরেস্ট্রি নিতে পারে। এখানে পিএইচ ডি-ও করা যায়। এ ছাড়া বাইরের প্রতিষ্ঠান (আইসিএআর) থেকেও ছেলেমেয়েরা এখানে স্নাতকোত্তর পড়তে আসতে পারে। যাদের স্নাতক স্তরে ফরেস্ট্রি নেই, তাদের ১০ ক্রেডিট আওয়ার ডেফিশিয়েন্সি ফরেস্ট্রি কোর্স করতে হয় আইসিএআর-এর নির্ধারিত নিয়ম অনুযায়ী। কিন্তু যারা ফরেস্ট্রির স্নাতক, তাদের এই কোর্সটি বাধ্যতামূলক নয়।     

 

প্রতিষ্ঠান

রাজ্য তথা রাজ্যের বাইরে ফরেস্ট্রি নিয়ে পড়ার কয়েকটি উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান—

• নভসারি এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি-র কলেজ অব ফরেস্ট্রি 

এখানে ফরেস্ট্রিতে বি এসসি ছাড়াও এম এসসি এবং পিএইচ ডি করা যায়।

http://nau.in/unithome/College%20Of%20Forestry

• ডক্টর পঞ্জাবরাও দেশমুখ কৃষি বিদ্যাপীঠ, আকোলা, মহারাষ্ট্র

ফরেস্ট্রিতে স্নাতকোত্তর পড়ানো হয়। স্পেশালাইজেশন-এর সুযোগ রয়েছে সিলভিকালচার অ্যান্ড অ্যাগ্রোফরেস্ট্রি, ফরেস্ট বায়োলজি অ্যান্ড ট্রি ইমপ্রুভমেন্ট, ন্যাচরাল রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট এবং ফরেস্ট প্রোডাক্ট অ্যান্ড ইউটিলাইজেশন-এ।

www.pdkv.ac.in

• হেমবতী নন্দন বহুগুনা গঢ়বাল ইউনিভার্সিটি

প্রতিষ্ঠানের ফরেস্ট্রি অ্যান্ড ন্যাচরাল রিসোর্সেস বিভাগে এই বিষয়ে 

এম এসসি ও পিএইচ ডি করা যায়।

http://hnbgu.ac.in

• ওড়িশা ইউনিভার্সিটি অব এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি-র

কলেজ অব ফরেস্ট্রি, ভুবনেশ্বর

এম এসসি ফরেস্ট্রি পড়া যায়। স্পেশালাইজেশন-এর সুযোগ রয়েছে সিলভিকালচার অ্যান্ড অ্যাগ্রোফরেস্ট্রি আর ফরেস্ট প্রোডাক্ট অ্যান্ড ইউটিলাইজেশন-এ।

www.ouat.nic.in/collegeof_forestry

• বস্তার ইউনিভার্সিটি,  জগদলপুর, ছত্তীসগঢ়

এখানকার স্কুল অব স্টাডিজ ইন ফরেস্ট্রি অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফে এম এসসি (ফরেস্ট্রি অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ) ও পিএইচ ডি পড়ানো হয়।

http://www.bvvjdp.ac.in/

• গুরু ঘাসিদাস বিশ্ববিদ্যালয়

এখানে ফরেস্ট্রি, ওয়াইল্ডলাইফ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস-এ দু’বছরের এম এসসি ছাড়াও পিএইচ ডি করা যায়। 

• কুমায়ুন বিশ্ববিদ্যালয়

স্নাতক কোর্স ছাড়াও এম এসসি ও পিএইচ ডি করা যায়।

http://kunainital.ac.in 

• মিজোরাম বিশ্ববিদ্যালয়

এম এসসি, এম ফিল ও পিএইচ ডি করার সুযোগ রয়েছে।

https://mzu.edu.in

• পঞ্জাব এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি

প্রতিষ্ঠানে কলেজ অব হর্টিকালচার অ্যান্ড ফরেস্ট্রিতে ফরেস্ট্রিতে 

এম এসসি পড়া যায়।

https://www.pau.edu/cohf/index.php?_act=manageDepartments&DO=viewDepartment&intLinkID=7

• এগ্রিকালচার ইউনিভার্সিটি কোটা, রাজস্থানের কলেজ অব হর্টিকালচার অ্যান্ড ফরেস্ট্রিতে এম এসসি 

কোর্স আছে।

https://chfjhalawar.org/

• ডক্টর ভীমরাও অম্বেডকর বিশ্ববিদ্যালয়

দু’বছরের এম এসসি ফরেস্ট্রিতে ২০টি আসন রয়েছে। 

https://www.dbrau.org.in/Department_of_Forestry.aspx

• তামিলনাড়ু এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি

স্নাতকোত্তর পড়া যায়।

http://www.tnau.ac.in/

• ইউনিভার্সিটি অব এগ্রিকালচারাল সায়েন্সেস, ধারওয়াড়

এম এসসি ফরেস্ট্রি করা যায়। পরে স্পেশালাইজেশনের সুযোগ রয়েছে ফরেস্ট জেনেটিক রিসোর্স, ফরেস্ট ওয়াটারশেড ম্যানেজমেন্ট, প্লান্টেশন টেকনোলজি বা মেডিসিনাল অ্যান্ড অ্যারোমাটিক প্লান্টস-এ। 

http://www.uasd.edu/

• উত্তরবঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়

এম এসসি করা যায় এই বিষয়ে। পিএইচ ডি-ও আছে।

http://www.ubkv.ac.in/msc-forestry/

• নর্থ ইস্টার্ন রিজিয়োনাল ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, নির্জুলি, অরুণাচল প্রদেশ

এম এসসি ও পিএইচ ডি কোর্স রয়েছে।

https://nerist.ac.in/forestry

• ডক্টর যশোবন্ত সিংহ পার্মার ইউনিভার্সিটি অব হর্টিকালচার অ্যান্ড ফরেস্ট্রি, নওনি, হিমাচল প্রদেশ

প্রতিষ্ঠানের কলেজ অব ফরেস্ট্রিতে এম এসসি ফরেস্ট্রি (মেডিসিনাল অ্যান্ড অ্যারোম্যাটিক প্লান্টস), এম এসসি ফরেস্ট্রি (উড সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি) ছাড়াও পিএইচ ডি (মেডিসিনাল অ্যান্ড অ্যারোম্যাটিক প্লান্টস) করা যায়।

http://www.yspuniversity.ac.in/

• কলেজ অব হর্টিকালচার অ্যান্ড ফরেস্ট্রি, নেরি, হামিরপুর

এখানে এম এসসি অ্যাগ্রোফরেস্ট্রি পড়ানো হয়।

http://www.yspuniversity.ac.in/cohf/cohf-acad.html

• কেরল এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি-র অন্তর্গত কলেজ অব ফরেস্ট্রি, থিসুর

এখানে এম এসসি ফরেস্ট্রি পড়া যায় সিলভিকালচার অ্যান্ড অ্যাগ্রোফরেস্ট্রি, ফরেস্ট বায়োলজি অ্যান্ড ট্রি ইমপ্রুভমেন্ট, ওয়াইল্ডলাইফ সায়েন্সেস, ন্যাচরাল রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট, ফরেস্ট প্রোডাক্টস অ্যান্ড ইউটিলাইজেশন নিয়ে। আর পিএইচ ডি-ও করা যায় এই সব বিষয়ে।

http://forestry.kau.in/

• বীরচন্দ্র সিংহ গঢ়বালি উত্তরাখণ্ড ইউনিভার্সিটি অব হর্টিকালচার অ্যান্ড ফরেস্ট্রি-র কলেজ অব ফরেস্ট্রি, রানিচৌরি

এখানে পাঁচটি স্নাতকোত্তর প্রোগ্রাম রয়েছে। এম এসসি (ফরেস্ট্রি) অ্যাগ্রো-ফরেস্ট্রি, এম এসসি (ফরেস্ট্রি) সিলভিকালচার, এম এসসি (ফরেস্ট্রি) ট্রি ইমপ্রুভমেন্ট, এম এসসি (ফরেস্ট্রি) ফরেস্ট প্রোডাক্টস অ্যান্ড ইউটিলাইজেশন এবং এম এসসি (ফরেস্ট্রি) সিড সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি

https://www.uuhf.ac.in/academics/college-of-forestry-ranichauri ইত্যাদি

  

অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানেই সাধারণত ফরেস্ট্রিতে জেনারেল কোর্স পড়ানো হয়। কোথাও কোথাও আবার বিষয়ের নির্দিষ্ট শাখায় স্পেশালাইজেশন-সহ পড়ার সুযোগ মেলে। স্পেশালাইজেশনের বিষয়গুলি হল— অ্যাগ্রোফরেস্ট্রি, এনভায়রনমেন্ট ম্যানেজমেন্ট, ফরেস্ট জেনেটিক রিসোর্সেস, মেডিক্যাল অ্যান্ড অ্যারোম্যাটিক প্লান্টস, উড সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ওয়াটারশেড ম্যানেজমেন্ট, সিলভিকালচার, সাস্টেনেবল ডেভেলপমেন্ট, ফরেস্ট বায়োলজি অ্যান্ড ট্রি ইমপ্রুভমেন্ট, ফরেস্ট প্রোডাক্টস অ্যান্ড ইউটিলাইজেশন ইত্যাদি। 

কিছু প্রতিষ্ঠানে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব এগ্রিকালচারাল রিসার্চ পরিচালিত প্রবেশিকা পরীক্ষা দিয়ে ভর্তি হতে হয়। আবার কয়েকটি প্রতিষ্ঠান নিজেদের মতো পরীক্ষা নিয়ে থাকে। 

 

গবেষণা

ফরেস্ট্রির বিভিন্ন শাখায় গবেষণার সুযোগ রয়েছে। আমাদের দেশে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেখানে ফরেস্ট্রি এবং আনুষঙ্গিক বিষয়ে গবেষণা করা যায়। এদের প্রায় সকলেই ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব ফরেস্ট্রি রিসার্চ অ্যান্ড এডুকেশন-এর অন্তর্গত। যেমন,

• অ্যারিড ফরেস্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট, জোধপুর

www.gfar.net/organizations/arid-forest-research-institute-jodhpur

• ইনস্টিটিউট অব উডস সায়েন্স আন্ড টেকনোলজি, বেঙ্গালুরু

http://iwst.icfre.gov.in/

• হিমালয়ান ফরেস্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট, শিমলা

http://hfri.icfre.gov.in/

• ইনস্টিটিউট অব ফরেস্ট প্রোডাক্টিভিটি, রাঁচি

• ট্রপিকাল ফরেস্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট, জব্বলপুর

• ইনস্টিটিউট অব ফরেস্ট জেনেটিক্স অ্যান্ড ট্রি ব্রিডিং, কোয়েম্বাত্তুর

• সেন্টার ফর সোশ্যাল ফরেস্ট্রি অ্যান্ড ইকো-রিহ্যাবিলিটেশন, এলাহাবাদ

• ফরেস্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট, হায়দরাবাদ

• রেন ফরেস্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট, জোরহাট

• ইন্ডিয়ান প্লাইউড ট্রেনিং অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট, বেঙ্গালুরু

অন্য দিকে

যদি কেউ অন্য ধরনের পড়াশোনা করতে ইচ্ছুক হয়, তা হলে সে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব ফরেস্ট ম্যানেজমেন্ট ভোপাল থেকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন ফরেস্ট্রি ম্যানেজমেন্ট পড়তে পারে। এখানে কমন অ্যাডমিশন টেস্ট (ক্যাট) বা জেভিয়ার অ্যাপটিটিউড টেস্ট-এর মাধ্যমে ভর্তি হওয়া যায়।

এ ছাড়া ইউনিয়ন পাবলিক সার্ভিস কমিশন ‘ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস’ পরীক্ষা পরিচালনা করে প্রতি বছর। যেমন প্রত্যেকটি জেলার এক জন জেলাশাসক থাকেন, তেমনই প্রত্যেকটি জেলার থাকে ডিসট্রিক্ট বা ডিভিশনাল ফরেস্ট অফিসার। এই সর্বভারতীয় পরীক্ষার মাধ্যমে এই সব পদে যোগ দেওয়া যায়। পরে এঁরাই হতে পারেন ডেপুটি কনজারভেটর অব ফরেস্ট, চিফ কনজারভেটর অব ফরেস্ট, প্রিন্সিপাল চিফ কনজারভেটর অব ফরেস্ট ইত্যাদি।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন