×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৮ জুন ২০২১ ই-পেপার

বেসরকারি হল-চ্যানেলে বাধা নেই দেব-দর্শনে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৮ মার্চ ২০১৪ ০৪:০৮

নায়ক-প্রার্থীর ভক্তদের জন্য সুখবর! ভোটের প্রচার জমে উঠলেও বেশির ভাগ টিভি চ্যানেল বা প্রেক্ষাগৃহে নায়ক-শিল্পীদের ছবি দেখানোয় কোনও বাধা থাকছে না।

শুক্রবার বিবৃতি দিয়ে এ নিয়ে ধোঁয়াশা অনেকটাই দূর করে দিল নির্বাচন কমিশন।

কমিশন বলেছে, নির্বাচনী-বিধি অনুযায়ী তারকা-প্রার্থীর মনোনয়নপত্র পেশের আগে পর্যন্ত যে কোনও হল বা চ্যানেলে তাঁর অভিনীত সিনেমা-নাটক ইত্যাদি চলতেই পারে। তবে ভোটের নির্ধারিত দিনের ১৪-২১ দিন আগে মনোনয়নপত্র পেশ-পর্ব শুরু হলে সরকারি প্রচারমাধ্যম (দূরদর্শন, আকাশবাণী) বা সরকারি প্রেক্ষাগৃহে তারকাদের অনুষ্ঠান দেখানো যাবে না। কিন্তু তখনও অন্যত্র ওই সব অনুষ্ঠান দেখাতে সমস্যা নেই। শুধু ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে কোনও টিভি চ্যানেল বা ওই ধরনের প্রচারমাধ্যমে তারকা-প্রাথীদের নিয়ে কিছু দেখানো

Advertisement

যাবে না।

এই ঘোষণায় কার্যত ঘাম দিয়ে জ্বর ছাড়ছে টালিগঞ্জের। তারকা-নায়ক দেবের ছবি বা টিভি শো-র প্রযোজকরা রীতিমতো চিন্তায় ছিলেন এ ক’দিন। দেব অভিনীত ‘রংবাজ’-এর প্রযোজক নিসপাল সিংহ রানে যেমন বলছেন, “ভোটের জন্য টিভি চ্যানেলে দেবের ফিল্মের গান দেখানো না-গেলে, বেশ বাজে ব্যাপার হতো! এখন নিশ্চিন্ত লাগছে।” দেবের অনেক ছবির স্যাটেলাইট স্বত্ত্বও রয়েছে বিভিন্ন চ্যানেলের হাতে। ভোটবিধি অনুযায়ী, সেই সব ছবির প্রদর্শনেও বাধা থাকছে না।

তবে ‘বুনোহাঁস’-এর পরিচালক অনিরুদ্ধ রায়চৌধুরী আপাতত তাঁর ছবির মুক্তি পিছিয়েই দিতে চাইছেন। ‘বুনোহাঁসে’ দেব ছাড়া আর এক তারকা-প্রার্থী মুনমুন সেনও অভিনয় করেছেন। এপ্রিলে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ছবিটির। অনিরুদ্ধবাবুর কথায়, “যা বুঝছি, সরকারি হল নন্দনে ছবিটি দেখানো নিয়ে সমস্যা হতে পারে! তাই এখন ছবিটি রিলিজ করে কাজ নেই।” তাঁর মতে, নন্দন বরাবরই বাংলা সিনেমাকে ভাল ব্যবসা দেয়। সেক্ষেত্রে নন্দনে ‘বুনোহাঁস’ দেখানো না-গেলে লোকসান হবে। এবং সেটা দেবের জন্যও ভাল হবে না।

এ ছাড়া, প্রার্থী দেবের ভোটজনিত ব্যস্ততায় ছবির প্রচারে সমস্যা হতে পারে বলেও অনিরুদ্ধবাবুর ধারণা। তাঁর কথায়, “একই সঙ্গে ছবির প্রোমোশন ও ভোটের প্রচার সোজা কাজ নয়! আমি দেবের শুভাকাঙ্ক্ষী। দু’-তিন মাস বাদে ঠান্ডা মাথায় ও এই ছবির প্রচারে মন দিতে পারলে সবারই ভাল।”

তবে বেসরকারি চ্যানেলে দেবের সঞ্চালনায় রিয়্যালিটি শো ‘ডান্স বাংলা ডান্স’-এর পথে আপাতত কাঁটা নেই। বৃহস্পতি থেকে শনি--- ফি-হপ্তা বাড়িতে বসে দেব-দর্শন বহাল থাকবে বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে সংশ্লিষ্ট চ্যানেলের কর্তা সুজয় কুট্টি চিন্তিত, দেবের বাকি শু্যটিং-পর্ব কী ভাবে মেটাবেন তাই নিয়ে। দেব এখন অন্য ছবির কাজে দক্ষিণ ভারতে শু্যটিংয়ে ব্যস্ত। সুজয় বলছেন, “আগামী সপ্তাহে ও (দেব) ফিরলেই ওর সঙ্গে বসে শু্যটিংয়ের দিনক্ষণ ঝটপট ঠিক করে ফেলব।” শো-র পরিচালক শুভঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, দেব সপ্তাহে দু’দিন সময় দিতেন। শু্যটিং করতেন টানা ১০-১২ ঘণ্টা। মার্চের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত শু্যটিং সারাও আছে। বাকি অংশটা, দেবের ভোট-প্রচারের ব্যস্ততার মধ্যে তুলে ফেলাটাই আপাতত তাঁদের চ্যালেঞ্জ।

একটা প্রশ্ন অবশ্য রাজনীতির লোকেদের মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছে। দেবের মতো জনপ্রিয় তারকার টিভি শো বা অন্য কোনও অনুষ্ঠান যদি ভোট-প্রচারে ব্যবহার করা হয়, তা হলে কী হবে। এ বিষয়ে কমিশনের বক্তব্য, তেমন কোনও অভিযোগ এলে তা গুরুত্বের সঙ্গেই খতিয়ে দেখা হবে।

Advertisement