Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

পুনর্বিন্যাস হতে চলেছে থানা

শান্তশ্রী মজুমদার
কাকদ্বীপ ১৭ মে ২০১৭ ০২:৪৬

দূরত্বের জন‌্য অপরাধ মোকাবিলায় সমস্যা হচ্ছিল। দ্রুত পুলিশকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছতে পারছিলেন না। কাকদ্বীপ থানা থেকে ভেঙে ‘হারউড পয়েন্ট’ (উপকূল থানা) তৈরি হয় দু’বছর আগে। কিন্তু তাতেও সমস্যা মেটেনি। কারণ, হারুড পয়েন্টের মধ্যে এমন কিছু এলাকা রয়েছে যা কাকদ্বীপ থানার কাছেই। তাই কাছেই কাকদ্বীপ থানা থাকলেও কোনও প্রয়োজনে ওই সব এলাকার বাসিন্দাদের ছুটতে হচ্ছে হারুড পয়েন্টই। একই সমস্যা পড়তে হচ্ছে পুলিশকেও। এই সমস্যা দূর করতে তাই দীর্ঘ দিন পরে থানার পুনর্বিন্যাস হতে চলেছে কাকদ্বীপে।

ফেব্রুয়ারি মাসে তৎকালীন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে এই প্রস্তাব পুলিশ অধিকর্তার দফতরে পাঠানো হয়েছিল। সম্প্রতি ওই দফতর থেকে বিষয়টিতে সম্মতি জানিয়ে স্বরাষ্ট্র দফতরের কাছে চিঠি দিয়ে প্রস্তাবটি পাশ করার আর্জি জানানো হয়েছে। এখন থানা বিভাজন শুধুমাত্র নবান্নের চূড়ান্ত সম্মতির অপেক্ষায়। তবে এখন দু’টি থানাই সুন্দরবন পুলিশ জেলার মধ্যে। ওই পুলিশ জেলার সুপার তথাগত বসু বলেন‌, ‘‘এ রকম একটা প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। তবে সে সময়ে আমি দায়িত্বে ছিলাম নাম। নতুন নির্দেশ পেলে সেই মতো ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’

২০১৫ সালে কাকদ্বীপ থানা থেকে ৬টি পঞ্চায়েত নিয়ে তৈরি হয় হারুড পয়েন্ট (উপকূল থানা)। পরে জানা যায়, তার মধ্যে বিবেকানন্দ, বাপুজি এবং শ্রীনগর— এই তিনটি পঞ্চায়েত আদৌ উপকূল এলাকাভুক্ত নয়। তাই ওই তিনটি পঞ্চায়েতকে আবার ফিরিয়ে আনা হচ্ছে কাকদ্বীপ থানা এলাকার মধ্যে।

Advertisement

পুলিশ ও প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, বিবেকানন্দ পঞ্চায়েত কাকদ্বীপ থানার কাছে হলেও রোজকার কাজকর্মে মানুষকে যেতে হচ্ছে অনেকটা দূরে, হারুড পয়েন্টের দিকে। বিষয়টি নিয়ে বিবেকানন্দ পঞ্চায়েতে কাকদ্বীপ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সদস্যদের আপত্তি ছিল। গত পাঁচ মাস আগে তাঁরা পুলিশকর্তাদের কাছে একটি আবেদন জানান, বিবেকানন্দ পঞ্চায়েতটিকেও কাকদ্বীপ থানা এলাকার মধ্যে আনা হোক। এলাকার মন্ত্রী মন্টুরাম পাখিরাও থানার পুনর্বিন্যাস করে মহকুমা সদরের প্রধান কাকদ্বীপ থানার এলাকা বাড়ানোর ব্যাপারে আগ্রহী।

বিবেকানন্দ পঞ্চায়েতের মধ্যে থাকা হরিপুরে এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ ওঠে ২০১৫ সালে। মামলাটি এখনও বিচারাধীন। তখনই নানা মহল থেকে প্রশ্ন উঠেছিল, হরিপুর কাকদ্বীপ থানার কাছে হলেও কেন দূরের হারুড পয়েন্টের নজরদারিতে থাকবে? তা ছাড়া, কাকদ্বীপের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিতি কাকদ্বীপ মৌজাটিও মূল থানা কাকদ্বীপের অন্তর্ভুক্ত নয়। বিষয়টি নিয়ে নানা মহল থেকে আপত্তিও ওঠে।

সুন্দরবন জেলা পুলিশের কর্তারা জানিয়েছেন, হারুড পয়েন্টের রামকৃষ্ণ, মধুসূদনপুর এবং সূর্যনগর উপকুল এলাকাভুক্ত মুড়িগঙ্গা লাগোয়া বলে পরে জানতে পারেন পুলিশকর্তারা। তাই আপাতত ওই তিনটি পঞ্চায়েত নিয়েই উপকুল থানাটি চালানোর প্রস্তাব রয়েছে।

আরও পড়ুন

Advertisement