Advertisement
২৪ জুন ২০২৪
Tapas Saha

দমকলে নিয়োগে বিধায়ক তাপস যুক্ত! বিজেপির পর এ বার একই দাবি করলেন তৃণমূলেরই নেত্রী

শুক্রবারই বিজেপির তরুণজ্যোতি তিওয়ারি একটি অডিয়ো ক্লিপ প্রকাশ্যে আনেন। তিনি দাবি করেন, টেলিফোনে তাপসকে দমকল দফতরে চাকরির আশ্বাস দিয়ে টাকা চাইতে শোনা গিয়েছে।

টিনা ভৌমিক সাহা। নিজস্ব চিত্র।

টিনা ভৌমিক সাহা। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
তেহট্ট শেষ আপডেট: ২৫ মার্চ ২০২৩ ২১:০২
Share: Save:

অডিয়ো ক্লিপ প্রকাশ্যে এনে তেহট্টের তৃণমূল বিধায়ক তাপস সাহার বিরুদ্ধে দমকলে চাকরি করে দেওয়ার নাম করে টাকা তোলার অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। এ বার বিধায়কের বিরুদ্ধে ‘চাকরি-দুর্নীতি’র অভিযোগ করলেন দলেরই এক নেত্রী। সাংবাদিক বৈঠকে কিছু কাগজপত্র দেখিয়ে তিনি দাবি করলেন, সেগুলিই নাকি তাপসের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের ‘তথ্যপ্রমাণ’! বিধায়ক অবশ্য সবই অস্বীকার করেছেন। এই পরিস্থিতিতে তৃণমূলের অভ্যন্তরীণ গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে কটাক্ষ করতে শুরু করেছে বিজেপি।

শুক্রবারই বিজেপির তরুণজ্যোতি তিওয়ারি একটি অডিয়ো ক্লিপ (সেটির সত্যতা যাচাই করেনি আনন্দবাজার অনলাইন) প্রকাশ্যে আনেন। তিনি দাবি করেন, টেলিফোনে তাপসকে দমকল দফতরে চাকরির আশ্বাস দিয়ে টাকা চাইতে শোনা গিয়েছে। এর পরেই শনিবার দুপুরে নদিয়ার নাজিরপুরে সাংবাদিক সম্মেলন করে একই অভিযোগ তুললেন কৃষ্ণনগর সাংগঠনিক জেলা তৃণমূলের বঙ্গজননীর সভানেত্রী টিনা ভৌমিক সাহা। জেলা পরিষদের সদস্য টিনার দাবি, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ থেকে শুরু করে দমকল-সহ একাধিক দফতরে দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত বিধায়ক। টিনা বলেন, ‘‘বিভিন্ন দফতরে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নাম করে দলীয় কর্মী ও সাধারণ মানুষের থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়েছেন। আত্মসাৎ করেছেন।’’

টিনার এই দাবি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন তাপস। উল্টে প্রাথমিক শিক্ষক পদে তাঁর নিয়োগ নিয়েই প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন তিনি। শনিবার বিধায়ক আনন্দবাজার অনলাইনকে বলেন, ‘‘মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে থার্ড ডিভিশন পেয়ে টেট পাশ করে চাকরি পেল কী ভাবে! উনি যে স্কুলের শিক্ষিকা, সেই স্কুলে ৪ লক্ষ ৭৮ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগও উঠেছে ওঁর বিরুদ্ধে। তার তদন্তও করেছিল শিক্ষা দফতর। কলকাতা হাই কোর্টে মামলা হয়েছিল। এমন এক জন দাগী চোরের মুখ থেকে কোনও ভাষণ শুনব না।’’ টিনার পরিবারে ‘আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন সম্পত্তি বৃদ্ধি’ নিয়েও অভিযোগ তুলেছেন তাপস।

তাপসের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ অবশ্য নতুন নয়। তাঁর বিরুদ্ধে আগেই স্কুলে চাকরি দেওয়ার নামে টাকা তোলার অভিযোগ উঠেছে। তা নিয়ে তদন্তও করছে রাজ্য পুলিশের দুর্নীতি দমন শাখা। তাতে গ্রেফতার হন তাপসের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত প্রবীর কয়াল। এ বার বিধায়কের বিরুদ্ধে দমকল দফতরেও ‘চাকরি-দুর্নীতি’র অভিযোগ ওঠায় জেলায় কার্যত অস্বস্তিতে পড়েছে শাসক শিবির। দলের নেত্রী মুখ খোলায় সেই অস্বস্তি আরও বেড়েছে। রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসুর অবশ্য বক্তব্য, ‘‘দমকলে চাকরি পিএসসি-র মাধ্যমেই হয়।’’

গোষ্ঠীকোন্দল নিয়ে শাসকদলকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি। নদিয়া উত্তর জেলা বিজেপির সভাপতি অর্জুন বিশ্বাস বলেন, ‘‘তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে এখন সব সত্য প্রকাশে আসছে। টিনা বলছেন, তাপস চোর! তাপস বলছেন টিনা চোর! এখন মানুষ বুঝতে পারছে, তৃণমূলের সবাই চোর।’’ এর জবাবে কৃষ্ণনগর সাংগঠনিক জেলা সভাপতি কল্লোল খাঁ বলেন, ‘‘দুটো অভিযোগ সম্পর্কেই দল অবহিত। উচ্চতর নেতৃত্বকে বিষয়টি জানিয়েছি। তারা যা সিদ্ধান্ত নেবেন, সেটা আমরা মেনে নেব।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Tapas Saha
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE