Advertisement
১০ ডিসেম্বর ২০২২

ফি নিয়ে সমস্যা মেটাতে বৈঠক

স্কুলের ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে গত শুক্রবার রাস্তায় গাছ ফেলে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন দুর্গাপুরের জওহরলাল নেহরু রোড সংলগ্ন একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের অভিভাবকেরা। এর পরেই স্কুল-কর্তৃপক্ষ ও অবিভাবকদের নিয়ে বৈঠকে বসার কথা বলেছিলেন দুর্গাপুরের মহকুমাশাসক তথা ভারপ্রাপ্ত অতিরিক্ত জেলাশাসক (উন্নয়ন) শঙ্খ সাঁতরা।

নিজস্ব সংবাদদাতা
দুর্গাপুর শেষ আপডেট: ০৪ মে ২০১৭ ০১:০৮
Share: Save:

স্কুলের ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে গত শুক্রবার রাস্তায় গাছ ফেলে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন দুর্গাপুরের জওহরলাল নেহরু রোড সংলগ্ন একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের অভিভাবকেরা। এর পরেই স্কুল-কর্তৃপক্ষ ও অবিভাবকদের নিয়ে বৈঠকে বসার কথা বলেছিলেন দুর্গাপুরের মহকুমাশাসক তথা ভারপ্রাপ্ত অতিরিক্ত জেলাশাসক (উন্নয়ন) শঙ্খ সাঁতরা।

Advertisement

বুধবার সেই বৈঠক শেষে তিনি বলেন, ‘‘বেশ কিছু বিষয়ে সহমতে পৌঁছনো গিয়েছে। বাকি বিষয়গুলি দু’পক্ষ আলোচনায় বসে মিটিয়ে ফেলবে।’’ এ দিকে, এ দিনের বৈঠকে দু’পক্ষই সন্তুষ্ট বলেও জানা গিয়েছে।

অভিভাবকদের অভিযোগ ছিল, আলোচনা না করে মাসিক ফি প্রায় ১৫ শতাংশ বাড়িয়েছেন স্কুল-কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া, এত দিন আগাম দু’মাসের ফি জমা নেওয়া হতো। কিন্তু চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকে তা তিন মাসের করা হয়েছে বলে অভিযোগ। তা দিতে একমাস দেরি হলে ৫০০ টাকা জরিমানার কথাও বলা হয়। আরও অভিযোগ, স্কুল থেকেই বই-জামাকাপড় কিনতে বাধ্য করা হচ্ছে।

এর পরেই বর্ধিত ফি প্রত্যাহারের দাবিতে ২৪ এপ্রিল স্কুলের সামনে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকেরা। ফল না মেলায় শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল রাস্তা অবরোধ করেন তাঁরা।

Advertisement

বুধবার মহকুমাশাসকের কার্যালয়ে আয়োজিত ওই বৈঠকে দু’পক্ষের প্রতিনিধারা ছাড়াও উপস্থিত ছিল পুলিশ। বৈঠক শেষে মহকুমাশাসক জানান, তিন মাসের আগাম ফি দিতে হবে না। তা ছাড়া প্রথম মাসে নয়, পর পর দু’বার ফি দিতে দেরি হলে তবে পাঁচশো টাকা জরিমানা নেওয়া যাবে। অনলাইনেও চালু থাকবে একই নিয়ম। এ ছাড়া, ফি কতটা কমানো সম্ভব, তা জানিয়ে দেবেন স্কুল-কর্তৃপক্ষ।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির ফি বাতিল হবে নাকি কমানো হবে, তা-ও পরে ঠিক করা হবে। মহকুমাশাসক বলেন, ‘‘আগামী বুধবার পরবর্তী বৈঠকের দিন ঠিক হবে। তবে এ বার আর প্রশাসন নয়। দু’পক্ষ নিজেরাই বসে বাকি বিষয়গুলি মিটিয়ে নেবে।’’

স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা অনিন্দিতা হোমচৌধুরী বলেন, ‘‘বৈঠকে বেশ কিছু প্রস্তাব উঠেছে। আমরা বেশ কিছু সিদ্ধান্তে একমতও হয়েছি। বাকি বিষয় স্কুলের পরিচালন সমিতির সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। অভিভাবকদের সঙ্গে পরবর্তী বৈঠকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.