Advertisement
০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

বিদ্যুতের নতুন বিম ডিএসপি-র

বাড়তে থাকা চাহিদা সামাল দিতে সরবরাহের পরিকাঠামো আরও উন্নত করায় জোর দিচ্ছে বিভিন্ন রাজ্যের বিদ্যুৎ সংস্থাগুলি। প্রচলিত বিদ্যুতের খুঁটির বদলে উন্নতমানের ধাতব খুঁটি ব্যবহার করা হচ্ছে সেই কাজে। সে জন্য বিশেষ ধরনের বিম উৎপাদন করে তা ইতিমধ্যে ভিন্‌ রাজ্যে পাঠাতে শুরু করেছে দুর্গাপুর স্টিল প্ল্যান্ট।

সুব্রত সীট
দুর্গাপুর শেষ আপডেট: ১৬ জুন ২০১৮ ০২:৪৬
Share: Save:

বাড়তে থাকা চাহিদা সামাল দিতে সরবরাহের পরিকাঠামো আরও উন্নত করায় জোর দিচ্ছে বিভিন্ন রাজ্যের বিদ্যুৎ সংস্থাগুলি। প্রচলিত বিদ্যুতের খুঁটির বদলে উন্নতমানের ধাতব খুঁটি ব্যবহার করা হচ্ছে সেই কাজে। সে জন্য বিশেষ ধরনের বিম উৎপাদন করে তা ইতিমধ্যে ভিন্‌ রাজ্যে পাঠাতে শুরু করেছে দুর্গাপুর স্টিল প্ল্যান্ট।

Advertisement

ডিএসপি সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথম বার বিশেষ আকৃতির ওয়াইড প্যারালাল বিম (ডব্লিউপিবি) উৎপাদন হয়েছে সংস্থার ‘মিডিয়াম স্ট্রাকচারাল মিল’-এ। বৃহস্পতিবার ডব্লিউপিবি-১৬০ বোঝাই প্রথম ট্রাকটি ওডিশা পাওয়ার ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেডে সরবরাহ করার জন্য রওনা দেয়। যাত্রার সূচনা করেন ডিএসপি-র সিইও এ কে রথ। তিনি জানান, নতুন এই বিমগুলির ওজন কম। প্রচলিত বিমের থেকে ব্যবহারিক সুবিধা অনেক বেশি। বিভিন্ন রাজ্যের বিদ্যুৎ সরবরাহ সংস্থাগুলি নতুন এই বিম কিনতে উৎসাহ দেখিয়েছে। ডিএসপি সূত্রে জানা গিয়েছে, এর আগে ডিএসপি-তে যে ডব্লিউপিবি উৎপাদিত হত, প্রতি মিটারে তার ওজন ছিল ৩৭ কেজির বেশি। নতুন বিমের ক্ষেত্রে তা নেমে দাঁড়িয়েছে মিটারে ৩০ কেজির কিছু বেশি।

ডিএসপি-র সংশ্লিষ্ট বিভাগের আধিকারিকেরা জানান, এত দিন ওডিশা পাওয়ার ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড তুলনায় সরু অথচ বেশি ওজনের বিম ব্যবহার করত। এর ফলে বিম বেঁকে যাওয়ার বা ভেঙে পড়ার আশঙ্কা বেশি ছিল। ডিএসপি-র তৈরি নতুন বিমগুলিতে ১৯ শতাংশ কম ইস্পাত ব্যবহার করা হয়েছে। আবার সেগুলি চওড়াও বেশি। ফলে, নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা কম। এর ফলে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যাহত হওয়ার সম্ভাবনা কমবে।

কেন্দ্রের ‘দীনদয়াল উপাধ্যায় গ্রাম জ্যোতি যোজনা’ এবং ‘ইন্টিগ্রেটেড পাওয়ার ডেভলপমেন্ট স্কিম’-এর আওতায় প্রত্যন্ত এলাকায় নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে সারা দেশেই খুঁটির প্রয়োজন আগের থেকে বেড়েছে। সে জন্য উন্নতমানের খুঁটির দিকে ঝুঁকছে বিদ্যুৎ সরবরাহকারী সংস্থাগুলি। ডিএসপি সূত্রে জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যে মধ্যপ্রদেশ সরকারও সেখানকার বিভিন্ন সরবরাহ লাইনের জন্য সংস্থার তৈরি নতুন বিম নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গেও নতুন ধরনের এই বিম ব্যবহারের চেষ্টা শুরু হয়েছে বলে জানান ডিএসপি-র মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক চিন্ময় সমাজদার।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.